বৃহস্পতিবার ০৪ জুন ২০২০
Online Edition

বিশ্বের বিবেকবান মানুষের প্রতিবাদে মায়ানমার সরকার কর্ণপাত করছে না - ডাঃ শফিকুর রহমান

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলীতে প্রায় একশত রোহিঙ্গা মুসলমান নিহত হওয়ার নির্মম ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান। 

গতকাল শনিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যা, ধর্ষণ এবং তাদের ঘর-বাড়ি জ্বালিয়ে দেয়ার ঘটনার পর জাতিসংঘসহ সারা বিশ্বের বিবেকবান মানুষ তার প্রতিবাদ করলেও মায়ানমার সরকার তাতে কর্ণপাত করছে না। বাংলাদেশ সরকারের বাধা প্রদান সত্ত্বেও এখনো বাংলাদেশে রোহিঙ্গা মুসলমানরা প্রবেশ করছে এবং প্রায় ৪ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে উদ্বাস্তু অবস্থায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে তাদের পুনর্বাসনের জন্য জাতিসংঘ এবং ওআইসি মায়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। কিন্তু মায়ানমার সরকার তা উপেক্ষা করে আবারও গণহত্যা শুরু করেছে। গত ৫০ বছরে মায়ানমার সরকার সে দেশ থেকে প্রায় ১২ লক্ষ মুসলমানকে বিতাড়িত করেছে। 

 বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার উদ্দেশ্যে আগত রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর মায়ানমারের সীমান্ত রক্ষীরা গুলী বর্ষণ করছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ সরকারও তাদের বাংলাদেশে ঢুকতে দিচ্ছে না। এতে দিশেহারা হয়ে শত শত রোহিঙ্গা মুসলমান নাফ নদীতে ঝাপ দিয়ে নদীর পানিতে ভাসছে। এ অসহায় রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর গুলী বর্ষণের ঘটনা অত্যন্ত অমানবিক ও মানবতাবিরোধী। তিনি এ ঘটনার নিন্দা জ্ঞাপন করে বলেন, মায়ানমারে গণহত্যা বন্ধের ব্যাপারে সে দেশের সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করার জন্য জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেই এগিয়ে আসতে হবে। 

মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সে দেশের সরকারের পরিচালিত গণহত্যা বন্ধ করে তাদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তাদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে পুনর্বাসনের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে তিনি জাতিসংঘ, ওআইসি এবং সকল আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ও শান্তিকামী বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানান। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ