মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বিশ্ব একাদশে সুযোগ পেয়ে দারুণ খুশি তামিম

স্পোর্টস রিপোর্টার : বহু দিন ধরে নিজ দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে পাকিস্তান। জুনে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি জয়ের পর পাকিস্তান আরও মরিয়া।  তাদের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।  বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার উদ্যোগে সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানে হচ্ছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। পাকিস্তান বনাম বিশ্ব একাদশের মধ্যকার  লড়াইয়ে খেলবেন তামিম ইকবাল। বিশ্ব একাদশের পক্ষে খেলার সুযোগ পেয়ে দারুণ খুশি বাংলাদেশের তারকা ওপেনার তামিম।  গতকাল শুক্রবার মিরপুর  শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে এই সিরিজে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়ে তামিম বলেন, ‘বিশ্ব একাদশকে প্রতিনিধিত্ব করা বিশাল ব্যাপার।  এজন্য আমি গর্বিত।  আইসিসি অনুমোদিত সিরিজ বলে ম্যাচগুলোর আন্তর্জাতিক মর্যাদা থাকবে।  ক্রিকেট খেলুড়ে ১০টা দেশ একটা পরিবারের মতো অংশ নেবে সিরিজে। পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে কাউকে তো সহায়তা করতেই হবে।  আমার মনে হয়, আইসিসি একটা চমৎকার উদ্যোগ নিয়েছে। ’ তামিমের বিশ্বাস, এই সিরিজ আয়োজনের ফলে টেস্ট খেলুড়ে ‘বড়’ দলগুলো পাকিস্তানে খেলতে আগ্রহী হয়ে উঠবে।  তিনি বলেন, ‘সিরিজটা সফলভাবে আয়োজন করতে পারলে ভবিষ্যতে অনেক দলই পাকিস্তানে যাবে।  এটা শুরু হওয়া দরকার।  আরও আগে এমন উদ্যোগ নিতে পারলে ভালো হতো।’ বিশ্ব একাদশ বনাম পাকিস্তান একাদশের প্রীতি ম্যাচ ওপেনার তামিম ইকবালের খেলতে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর থেকেই শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনার ঝড়।  তবে তামিম মনে করছেন, পাকিস্তানে খেলাটা দোষের কিছু নয়। তামিম বলেন, ‘ক্রিকেটিং ১০টা দেশ একটি পরিবারের মতোই।  একজনকে না একজনকে তো সাহায্য করতেই হবে পাকিস্তানে ক্রিকেট ফিরিয়ে আনতে।’ তামিমের মতে, পাকিস্তানে বিশ্ব একাদশের খেলার এই উদ্যোগটা খুবই ভালো।  তিনি বলেন, ‘তারা একটা চমৎকার জিনিস আয়োজন করছে।  আশা করি, যদি সফলভাবে আয়োজন করতে পারে তারা।  তাহলে দেখবেন সামনে আরও টিম খেলতে যাবে সেখানে (পাকিস্তানে)।’ বাংলাদেশি এই ওপেনার মনে করেন, এমনটা আরও আগে শুরু হওয়া দরকার ছিল, ‘একটা সময় এটা শুরু হওয়া দরকার ছিল।  আমরা প্রথমেই শুরু করলাম।  আমার কাছে মনে হয় এটা একটি খুবই চমৎকার উদ্যোগ, যেটা আর একটু আগে শুরু হলে ভালো হতো। এছাড়া তামিম টুর্নামেন্টের মান এবং বিশ্ব একাদশকে প্রতিনিধিত্ব করার বিষয়েও কথা বলেন, ‘দেখুন, প্রথমত এটা আইসিসি অনুমোদিত একটা টুর্নামেন্ট। এছাড়া এটার একটা ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যাটাস আছে। দ্বিতীয়ত, আমার কাছে মনে হয়, বিশ্ব একাদশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করাটা বড় ব্যাপার।  এর জন্য আমি গর্বিত।’
বিশ্ব একাদশে তামিমদের অধিনায়কত্ব করবেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ দু প্লেসিস, আর কোচিংয়ের দায়িত্বে থাকবেন জিম্বাবুয়ের সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার। লাহোরে তিনটি ম্যাচ হবে ১২, ১৩ ও ১৫ সেপ্টেম্বর। লাহোরেই একটি  টেস্ট চলার সময় ২০০৯ সালের ৩ মার্চ জঙ্গিরা আক্রমণ করেছিল শ্রীলঙ্কার টিম বাসে। ওই হামলায় আহত হয়েছিলেন ৭ ক্রিকেটার। এরপর জিম্বাবুয়ে ছাড়া আরও কোনও দল পাকিস্তান সফরে যায়নি।
বিশ্ব একাদশ: ফাফ দু প্লেসিস (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, হাশিম আমলা, স্যামুয়েল বদ্রি, জর্জ  বেইলি, পল কলিংউড, বেন কাটিং, গ্র্যান্ট এলিয়ট, ডেভিড মিলার, মর্নে মরকেল, টিম পেইন, থিসারা পেরেরা, ইমরান তাহির ও ড্যারেন স্যামি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ