শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

তুর্কি সীমান্তে কুর্দি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার অনুমতি দেয়া হবে না-এরদোগান

২৪ আগস্ট, হুরিয়াত ডেইলি নিউজ : তুরস্ক তার দক্ষিণ সীমান্তে কুর্দি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার অনুমতি দেবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগান। উত্তর সিরিয়াতে ডেমোক্রেটিক ইউনিয়ন পার্টি (পিওয়াইডি) এবং পিপলস প্রোটেকশন ইউনিটের (ওয়াইপিজি) কুর্দি প্রতিষ্ঠার চেষ্টায় মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে প্রতিবেশি রাষ্ট্র প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে এরদোগান এই হুঁশিয়ারি দেন।

এরদোগান বলেন, ‘আমরা উত্তর সিরিয়াতে তথাকথিত কুর্দি রাষ্ট্র গঠনে পিওয়াইডি এবং ওয়াইপিজিকে অনুমতি দিতে পারি না এবং তা কখনো দেয়া হবে না।’ তিনি বলেন, ‘কুর্দি রাষ্ট্র’ শব্দটির ব্যবহার আমার কুর্দি ভাইদেরকে অপমানিত করে।’

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে, উত্তর সিরিয়া এবং দক্ষিণ তুরস্কে এই ধরনের রাষ্ট্র গঠনকে আমার কুর্দি ভাইরা কখনো সমর্থন করবে না। আমরা একটি ঐক্যবদ্ধ কাঠামোর মধ্যে দেশের ভিতরে আমারা এক জাতি। আমরা ৮০ মিলিয়ন মানুষের একটি জাতি। আমাদের এক পতাকা, এক দেশ এবং একটি রাষ্ট্র। আমাদের ৭৮০,০০০ বর্গ কিলোমিটারের একটি দেশ। যারা এই জাতিকে পৃথক করতে চায় আমরা তাদেরকে কবরে পাঠিয়ে দেব।

তিনি উল্লেখ করেন যে, আইএস সন্ত্রাসীদের বিতারিত করতে উত্তর সিরিয়ার ২,০০০ বর্গ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকা ইরাকি শিল্ড অপারেশনের অধীনে তুর্কি নিয়ন্ত্রণের অধীনে রয়েছে। গত বছর গাজিয়ানটেপে বিয়ের বহরে আইএসের হামলায় ৫৬ জনকে হত্যা করার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘কেন আমরা জারাব্লাসে প্রবেশ করলাম? যখন আমাদের ৫৬ জন নাগরিক গাজিয়াটেপে শহিদ হয়েছিলেন তখন আমরা বলেছিলাম 'আমরা আর সহ্য করতে পারব না' এবং বাধ্য হয়ে আমরা জারাব্লাসে প্রবেশ করলাম। তারপর আমরা আল-রাই, আল-বাব প্রবেশ করলাম এবং ২০০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলাম।’ পিওয়াইডি এবং ওয়াইপিজি’র লক্ষ্য হচ্ছে উত্তর সিরিয়া থেকে ভূমধ্যসাগরে পৌঁছানোর জন্য একটি ‘সন্ত্রাসী করিডর’ গঠন করা। এরদোগান প্রতিশ্রুতি দেন যে, তুরস্ক কেবল কথিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিকে (পিকেকে) বিতাড়িত করতে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ