বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

এলপি গ্যাসের দাম বৃদ্ধি ব্যবস্থা গ্রহণে নামছে খুলনা জেলা প্রশাসন

খুলনা অফিস: বাসাবাড়িতে ব্যবহৃত সব কোম্পানির এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। কোম্পানি ও কিছু অসাধু সিন্ডিকেট গ্যাসের দাম বাড়ানোর পেছনে কাজ করছে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এলপি গ্যাস দোকান মালিক সমিতি জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপিও দিয়েছে।  দফায় দফায় গ্যাসের দাম বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা অনতিবিলম্বে এলপি গ্যাসের দাম কমানোর দাবি জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে দেশের এলপি গ্যাস বাজারজাতকরণ কোম্পানি দাম বাড়িয়েছে। এর সাথে জড়িত রয়েছে খুলনার কিছু ডিস্ট্রিবিউটর। এদের হাত থেকে খুচরা বিক্রেতারা বেশি দামে গ্যাস বিক্রি করছে ক্রেতাদের কাছে। গত ৮ আগস্ট থেকে গ্রাহকদের কাছ থেকে বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে প্রতি সিলিন্ডার এলপি গ্যাস। নগরীতে বর্তমানে সব গ্যাস কোম্পানির সিলিন্ডার প্রতি দাম ৯’শ টাকা থেকে বেড়ে এক হাজার ২০ থেকে ৫০ টাকা হয়েছে। বসুন্ধরা কোম্পানি তাদের গ্যাস সিলিন্ডারের দাম কোম্পানির মূল্য ৮৪০ টাকা নির্ধারিত থাকলেও অসাধু বিক্রেতারা তা আমলে নিচ্ছেন না।
ক্রেতারা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত না হওয়ায় দাম এক হাজার টাকা হাতে নিয়ে খুচরা বিক্রেতারা এই ব্র্যান্ডের একটি সিলিন্ডার ধরিয়ে দিচ্ছে যদিও এই কোম্পানির কর্মকর্তারা বলছেন তাদের গ্যাস বাড়তি দামে যে বিক্রি করবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।
ক্লীনহীট, পেটট্রী, ওমেরা, বিএম, বেক্সিমকো, সেনা কল্যাণ, যমুনা ও টোটাল নামের সকল ব্র্যান্ডের এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের গ্যাসের দাম এখন বেশি।
এক হাজার টাকা থেকে এক হাজার ২০ টাকা। কেউ তার চেয়ে বেশি দাম নিচ্ছে। গ্যাসের দাম বাড়ার পেছনে কিছু ডিলারদের একটি সিন্ডিকেট কাজ করছে বলে মার্কেট অভিযোগ শোনা যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ