মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চুয়াডাঙ্গায় একইদিনে পৃথক ঘটনায় ২ স্কুলশিক্ষার্থী নিহত

চুয়াডাঙ্গা  জেলা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গায় একইদিনে পৃথক ঘটনায় ২ স্কুলশিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এর মধ্যে জেলার আলমডাঙ্গার গোপীবল-ভপুর গ্রামের নীলা নামের ৭ বছরের এক শিশুকন্যাকে আলমসাধু চাপা দিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরের দিকে স্কুলের সামনের সড়কে ওই শিশু কন্যা রাস্তা দিয়ে যাবার সময় বেপরোয়া গতিতে চালক তার আলমসাধু শিশুটির শরীরের উপর তুলে দিলে ঘটনাস্থলেই ক্ষতবিক্ষত হয়ে তার মুত্যু হয়। জানা গেছে,আলমডাঙ্গার গোপীবল¬ভপুর গ্রামের মাসুদ রানার শিশুকন্যা নীলা গ্রামেরই স্কুলে ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। দুপুরের দিকে স্কুল ছুটি হলে বাড়ি ফেরার সময় দূর্লভপুর গ্রামের আলম হোসেনের ছেলে লাল মিয়া আলমসাধু নিয়ে বেপরোয়া গতিতে গিয়ে স্কুলছাত্রী নীলাকে ধাক্কা দিলে ছিটকে রাস্তার ওপর পড়ে যায়। আলমসাধুর চাকায় পিষ্ট হয়ে রক্তাক্ত জখম হয়ে ঘটনাস্থলেই নীলার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ২ জনের নামে হত্যা মামলা হয়েছে।
অপর ঘটনায়-জীবননগরের গয়েশপুর বিজিবি ক্যা¤েপর পাশের পুকুরে বন্ধুদের সাথে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে মারা যায় স্কুলছাত্র ওলিউর রহমান। শনিবার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। স্কুলছাত্র ওলিউর (১১) জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের গয়েশপুর গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে ও জীবননগর পৌর কিন্ডার গার্ডেন স্কুলের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের মত শনিবার স্কুলছাত্র ওলিউর, তার বন্ধু ইসমাইল ও জান্নাতুল গয়েশপুর বিজিবি ক্যা¤েপর পাশের একটি পুকুরে গোসল করতে যায়। সবাই একসাথে পানিতে নেমে গোসল করার সময় ওলিউর পানিতে ডুব দেয়। দীর্ঘসময় পার হয়ে গেলেও ওলিউর ওলিউর পানির ভিতর থেকে না ওঠায় তার বন্ধুরা চিৎকার শুরু করে। এসময় এলাকার সাধারণ মানুষ পুকুরের ভিতরে নেমে ওলিউরকে উদ্ধার করে। পরে তাকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওলিউরকে মৃত ঘোষণা করেন।
যুব দিবস পালিত
চুয়াডাঙ্গা জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে আন্তর্জাতিক যুব দিবস পালিত হয়েছে।
এ উপলক্ষে গত শনিবার বেলা ১০টায় যুব কার্যালয় চত্বর থেকে এক যুব সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য যুব র‌্যালি জাফরপুর মোড় হয়ে চুয়াডাঙ্গা রেলগেট থেকে অফিস চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিভিন্ন ট্রেডের প্রশিক্ষনার্থীগণসহ উপ-পরিচালক, সহকারী পরিচালক, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসারসহ অত্র দপ্তরের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। চুয়াডাঙ্গা যুব উন্নয়নের উপ-পরিচালক জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আজিজুল হক হজরত। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাসুম আহম্মেদ, সিনিয়র প্রশিক্ষক এএসএম মাহমুদ হাসানগ এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন জাতীয় যুব পুরস্কারপ্রাপ্ত ও আকাংখা যুব মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক শাহীন সুলতানা মিলি, পল্লী উন্নয়ন সংস্থার (পাস)র নির্বাহী পরিচালক ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ। এ বছরের আন্তর্জাতিক যুব দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো “শান্তি প্রতিষ্ঠার যুব সমাজ” এই প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন সহ-প্রশিক্ষক তোহিদুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম। আলোচনা শেষে অফিস চত্বরে ফলজ ও বনজ বৃক্ষের চারা রোপণ করেন যুব সমাজ ও অতিথিবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ