বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মনিরামপুরে মন্দিরে প্রতীমা ভাংচুর ॥ এলাকায় উত্তেজনা

মণিরামপুর (যশোর) সংবাদদাতা : মণিরামপুরের রামপুর মালোপাড়া সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরে ৮/৯ টি প্রতীমা ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার গভীর রাতে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এ ভাংচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা দাবি করেছেন।
জানা যায়, রামপুর মালোপাড়ার এ মন্দিরের সভাপতি মহেন্দ্র বিশ^াস গতকাল সকালে মন্দিরের প্রতীমা ভাংচুরের বিষয়টি জানতে পারেন। তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদেরকে অবগত করেন। খবর পেয়ে যশোর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু নাসের আল জামাল, ওসি মণিরামপুর মোকাররম হোসেন, উপজেলা পূজা পরিষদের সধারণ সম্পাদক সুনিল কুমার ঘোষ, সংগঠনিক সম্পাদক তরুণ কুমার শীলসহ সংশ্লিষ্ট একাধিক ব্যক্তি সরেজমিন মালো পাড়ার মন্দিরে যান।
একাধিক সূত্র দাবি করেছেন, ঝাঁপা বাঁওড়ের বিরোধের জের হিসেবে একটি মহল এলাকার পরিবেশকে ঘোলাটে করতে পরিকল্পিতভাবে প্রতীমা ভাংচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে। ঝাঁপা বাওড় নিয়ে ঝাঁপা বাওড় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি ও সোনার বাংলা মৎস্যজীবী সমিতির মধ্যে বিরোধ চলে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মন্দিরের প্রতীমা ভাংচুরের মধ্য দিয়ে এলাকায় অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করতে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে এ ঘটনার পর ওই এলাকায় দুটি সংগঠনের লোক জনের মধ্যে উত্তেজনা করছে। উপজেলা পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুনিল কুমার ঘোষ দাবি করেছেন মন্দিরের প্রতীমা ভাংচুরের ঘটনাটি বাওড় নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্বের কারণে ঘটেছে। এটি  কোন সম্প্র্রদায়িক বিষয় নয়। জানতে চাইলে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (্ওসি) মোকররম হোসেন জানান, মন্দিরের প্রতীমা ভাংচুরের বিষয়টি ¯্রফে বাঁওড় নিয়ে দু’সমিতির দ্বন্দ্বের জের হিসেবে একটি গ্রুপ পরিকল্পিতভাবে ঘটিয়েছে। তবে এ ব্যাপারে মামলা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ