বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখতেই লড়বে কিশোর ফুটবলাররা

স্পোর্টস রিপোর্টার: শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখার মিশন নিয়েই দক্ষিন এশিয়ান ফুটবলের (সাফ) অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিতে নেপাল যাচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী বুধবার ৩০ সদস্যের দলটি নেপাল যাচ্ছে। গতকাল রোববার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বাফুফের টেকনিক্যাল অপারেশন ডিরেক্টর বায়েজিদ জোবায়ের নিপু। তিনি জানালেন,গত বছর দেশজুড়ে তৃণমূল পর্যায়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রায় পঁচিশ হাজার কিশোর ফুটবলার বাছাই করা হয়। পর্যায়ক্রমে চূড়ান্ত পর্বে ৬০ জনকে বাছাই করা হয়। এছাড়া পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে সেরা কিশোরদের বাছাই করা হয়েছে। যাদের মধ্য থেকেই ছেকে বেছে নেয়া হয়েছে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ টুর্নামেন্টের জন্য ৩০ ফুটবলারকে। যদিও দলের সঙ্গে যাচ্ছেন ২৩ জন। এই দলে বিকেএসপির ১১ জন, যশোরের শামসুল হুদা একাডেমির তিনজন, সিরাজগঞ্জের দু’জন এবং নারায়ণগঞ্জ, নোয়াখালী, ঢাকা, হবিগঞ্জ, রংপুর, বরিশাল ও সিলেটের একজন করে রয়েছেন। এছাড়া কোচ ও কর্মকর্তাসহ আরও সাতজন যাচ্ছেন দলের সঙ্গে। বাফুফের ও ডেভেলপমেন্ট কমিটির সদস্য শওকত আলী খান জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আমার মনে হয়, আমাদের বয়সভিত্তিক দলগুলো বেশ শক্তিশালী। তারাই আমাদের আশার প্রদীপের মতো। আশা করি তারা আমাদের সফলতা এনে দেবে।’ কোচ মোস্তফা জাহাঙ্গীর বলেন, ‘১৩ জুলাই খুলনায় এই দলের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প শুরু হয়েছিল। লক্ষ্য ছিল শিরোপা ধরে রাখা। সে লক্ষ্যে আমরা দীর্ঘ অনুশীলন করেছি। বিকেএসপিতে সাইফ স্পোর্টিংয়ের অনূর্ধ্ব-১৮ দলের সঙ্গে খেলেছি। ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় ক’টি দলের সঙ্গেও ম্যাচ খেলেছে ছেলেরা।’ অধিনায়ক জিহাদ হোসেনের বললেন, ‘চ্যাম্পিয়নশিপ ধরে রাখতে চাই আমরা। এটাই আমাদের এখন একমাত্র লক্ষ্য।’
উল্লেখ্য, সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল টুর্নামেন্টের ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে ভুটান ও শ্রীলংকা। ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে ভারত, নেপাল ও মালদ্বীপ। আগামী শুক্রবার উদ্বোধনী দিনে শ্রীলংকা এবং ২২ আগষ্ট ভুটানের বিপক্ষে খেলবে লাল সবুজের কিশোররা। ২৫ আগষ্ট সেমিফাইনাল এবং ২৭ আগষ্ট ফাইনাল খেলা হবে। সবগুলো খেলাই নেপালের আনফা কমপ্লেক্স এবং হলচক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দলের সদস্যরা হলেন: মোহাম্মদ আমের খান (টিম ম্যানেজার), মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ (হেড কোচ), মাহবুব আলম পাওলো (সহকারী কোচ),আহসানুজ্জামান (সহকারী কোচ),জানে আলম নূরী (গোলরক্ষক কোচ),সজিব সামস বকসি (ফিজিও), মোহাম্মদ মোহসিন (টিম এ্যাটেনডেন্ট)।ফুটবলারগন হলেন: মোহাম্মদ ইমন হাওলাদার,সামিউল বাশার,লিমন হোসেন,সাইফুল ইসলাম,ইয়াসিন আরাফাত,নাজমুল বিশ্বাস,রনি কুমার,জেহাদ হোসেন (অধি:),সাদেকুজ্জামান ফাহিম,রুনি হায়দার,মিনহাজুল করিম স্বাধীন,মোহাম্মদ রাজা শেখ,ফয়সাল আহমেদ ফাহিম,আরিফ হোসেন,মজিবর রহমান জনি,শান্তু দাস,আক্কাস আলী, দিপক রায়,মোহাম্মদ নাহিয়ান,মোহাম্মদ আকাশ,হাবিবুর রহমান,মিরাজ মোল্লা ও উজ্জল হোসেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ