বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

চুয়াডাঙ্গার দর্শনা রেলবন্দর অরক্ষিত নজর নেই কর্তৃপক্ষের

 

চুয়াডাঙ্গা জেলা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গার দর্শনা রেলবন্দরটি নানা অনিয়ম অব্যস্থাপনা ও কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে স্টেশন সংলগ্ন অরক্ষিত হয়ে পড়েছে। নানা অনিয়মে হারাতে বসেছে এর ঐতিহ্য। ইয়ার্ডে খোলা আকাশের নিচে রাখা রেলের লক্ষ লক্ষ টাকার সরকারী স¤পদ চুরি ও নষ্ট হচ্ছে, রক্ষার উদ্যোগ নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষেও রেলবন্দর এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, দীর্ঘদিন ইয়ার্ড ও ইয়ার্ড সংলগ্ন রাস্তা সংস্কার না হওয়ায় বিভিন্ন স্থানে পিচ-পাথর উঠে গিয়ে খানা খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই ইয়ার্ডের বিভিন্ন স্থানে পানি জমে ও কাদা-পানিতে একাকার হয়ে যায়। এই সাথে ভারত থেকে আমদানীকৃত সোয়াবিনের ভুষি পানিতে পড়ে দুর্গন্ধ বের হওয়ায় এ রাস্তায় এখন চলাচল করাই দায় হয়ে পড়েছে। এ কারণে ভোগান্তিতে পড়ছে আমদানীকৃত পণ্য খালাসকারী শ্রমিক, ট্রাকের ড্রাইভার ও হেলপাররা। ইয়ার্ডের জায়গা দখল করে প্রভাবশালীরা ইট, বালি ও খোয়াসহ বিভিন্ন নির্মান সামগ্রী রাখায় চরম অসুবিধা ভোগ করছেন বন্দর ব্যবহারকারীরা। 

এছাড়া স্টেশনের আশপাশসহ বন্দর এলাকায় অবাধে চলছে মদ, গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবাসহ নানা ধরনের মাদকদ্রব্য বেচাকেনা ও সেবন। সেইসাথে চলে জমজমাট জুয়ার আসর। আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এগুলো জেনেও নিয়মিত বখরা তোলার কারনে তারাও কোন ভূমিকা রাখছে না। ফলে মারাত্মকভাবে নষ্ট হচ্ছে রেলবন্দরসহ আশেপাশ এলাকার পরিবেশ। চুরি হচ্ছে ইয়ার্ডে রাখা রেল ও রেলের ¯ি¬পারসহ মূল্যবান সরকারী স¤পদ ও ব্যবসায়ীদের আমদানীকৃত মালামাল।

অভিযোগ আছে, ইয়ার্ডের নিরাপত্তা কর্মীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে চলে এসমস্ত অনৈতিক কার্যকলাপ। ফলে এ ধরনের নানা অনিয়মের কারণে হারাতে বসেছে বন্দরের দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য। রেল বন্দরের বিভিন্ন অনিয়ম দূরসহ এর ঐতিহ্য রক্ষার্থে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষন করেছেন সচেতনমহল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ