বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

পবিত্র আল-আকসা দখল মুক্ত করতে  মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার : মুসলমানদের প্রথম কিবলা পবিত্র আল-আকসা মসজিদে নামায আদায়ে প্রবেশ করতে দখলদার ইসরাইলের বাধাদান এবং মুসলমানদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে হত্যা ও আহত করার ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিবাদে রাজধানীসহ দেশব্যাপী বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর দয়াগঞ্জ এলাকায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিলে জামায়াতে ইসলামীর  কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহকারী সেক্রেটারি মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেছেন, পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাস মুসলমানদের প্রথম কিবলা। আল আকসা মসজিদ আজ জায়নবাদী ইহুদীদের অস্ত্রের কাছে জিম্মি। মুসলমানগণ তাদের পবিত্র মসজিদে নামায আদায়ের জন্য বিনা বাঁধায় যেতে পারছেনা। দখলদার ইসরাইলী সৈন্যদের বসানো মেটাল ডিটেক্টর ও বন্দুকের নল পার হয়ে সিমীত পরিসরে নামায আদায়ের জন্য যেতে পারছেন মুসল্লীগণ। ইসলাম ও মুসলমানদের প্রথম কিবলাকে অবৈধ ইসরাইলী দখলমুক্ত করতে হলে বিশ^ মুসলিম উম্মার আপোসহীন ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। মিছিলটি রাজধানীর দয়াগঞ্জ মোড় থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্মামীবাগে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন- মজলিশে শুরু সদস্য আবুল ফাতেহ, সাইফুল্লাহ, জামায়াত নেতা আহসানুল্লাহ, সাদেক বিল্লাহ, মনির হোসাইন, ছাত্রশিবির মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি শফিউল আলম, জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয় সভাপতি শাহিন হাসান প্রধান, মজিবুর রহমান মঞ্জু, শরিয়ত উল্লাহ, ইমাম হোসাইন, শেখ ফরিদ রাহাত প্রমুখ। 

মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, অবৈধভাবে জন্মের পর থেকেই ইহুদী রাষ্ট্র ইসরাইল ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে নানামুখী অপতৎপরতা ও গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিশে^র শান্তিকামী মুসলমানদের জন্য ইসরাইল এক বিষফোঁড়ার নাম। মুসলমানদের প্রথম কিবলা মসজিদে আল আকসার উপর তারা অবৈধ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে চায়। অস্ত্রের জোরে তারা পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাসে মুসলমানদের প্রবেশাধিকারকে সীমিত করতে চায়। নামায পড়তে আসা মুসল্লিদের উপর নির্বীচারে গুলী বর্ষণ করে জায়নবাদী ইহুদীরা পৃথিবীর শান্তির ইতিহাসকে বারবার কলঙ্কিত করেছে। জাতিসংঘ, মুসলিমবিশ^, ওআইসি, আরবলীগসহ দুনিয়ার মানুষের আজ জেগে উঠার সময় এসেছে। শুধু মুসলমানরাই নয় ইহুদীদের হাতে আজ পৃথিবীর কোন মানুষই নিরাপদ নয়। 

তিনি আরো বলেন, বর্বর ইসরাইল পবিত্র আল আকসা মসজিদে মুসল্লিদের নামায আদায় করতে না দিয়ে উল্টো তাদের উপর গুলী বষণ করে মুসল্লী হত্যার মাধ্যমে মানবতার ইতিহাসকে কলঙ্কিত করেছে। যা জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক মানবাধিকারেরও চরম লংঘন। পবিত্র আল-আকসাকে বর্বর ইহুদীদের হাত থেকে রক্ষার জন্য ঈমানী দায়িত্ব নিয়ে বিশে^র মুসলমানদের এগিয়ে আসতে হবে। 

অপর আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল মহানগরী কর্মপরিষদ সদস্য মুহাম্মদ শামছুর রহমানের নেতৃত্বে রাজধানীর মালিবাগ রেলগেট থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে মালিবাগ চৌধুরীপাড়া গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

মুহাম্মদ শামছুর রহমান বলেন, অবৈধ ইসরাইল ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে আল-আকসা মসজিদ দখলের চেষ্টা করছে। পবিত্রস্থান আল-আকসায় নামায পড়তে যাওয়া মুসল্লীদের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের মত আচরণ করা হচ্ছে। মসজিদ এলাকায় মেটাল ডিটেক্টর, বেষ্টনি ও ক্যামেরা বসানোর মাধ্যমে ইসরাইল মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে মারাত্মক আঘাত দিয়েছে। প্রতিটি ধর্মের নাগরিকদেরই নিজ নিজ ধর্মীর অনুশাসন স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার আছে। ইসরাইল মুসলমানদের সেই অধিকারকে কেড়ে নিতে চায়। 

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য মুহাম্মদ কামাল হোসাইন, আব্দুস সালাম, মহানগরী শুরা সদস্য আমিনুর রহমান, মতিউর রহমান, মতিঝিল থানা সেক্রেটারি মুতাছিম বিল্লাহ, ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পূর্ব সভাপতি এস আর মিঠু, ছাত্রনেতা যোবায়ের প্রমুখ। 

ঢাকা মহানগরী উত্তর: জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহা. রেজাউল করিম বলেছেন, দলখদার ইসরাইলী বাহিনী গোটা মধ্যপ্রাচ্যকে অশান্ত করে রেখেছে। তারা মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল আকসার পবিত্র অঙ্গনকে রক্তাক্ত ও কলঙ্কিত করেছে। ইহুদীবাদীরা গত ২১ জুলাই নামাযরত মুসল্লীদের উপর ইতিহাসের বর্বরোচিত ও ন্যক্কারজনক হামলা চালিয়েছে। ইতোপূর্বেও ইহুদীরা বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে হাজার হাজার নারী-পুরুষ ও শিশুদের হত্যা করেছে। কিন্তু কোন মুসলমান বেঁচে থাকতে আল আকসাকে দখলদারদের করায়ত্ত হতে দেবে না বরং যেকোন মূল্যে ইহুদীবাদীদের সকল অপচেষ্টা ও ষড়যন্ত্র রুখে দেবে। তিনি আল আকসাকে দখলদার মুক্ত করতে মুসলমানদেরকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

রাজধানীতে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে তিনি একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি মিরপুর ১০ নং  আল হেলাল হাসপাতালের সামনে থেকে হয়ে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক  প্রদক্ষিণ করে কাজীপাড়া গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারী সেক্রেটারি মাহফুজুর রহমান, মহানগরী কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন,  জামায়াত নেতা এডভোকেট মনির, নাসির উদ্দীন, আব্দুল আউয়ার আজম, আব্দুল মতিন খান, আবুল হাসান, মিজানুল হক, ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী পশ্চিমের সভাপতি ডা. মুজাহিদুল ইসলাম, সেক্রেটারি  আব্দুল আলীম, উত্তর সেক্রেটারি সজীব আহমদ ও ছাত্রনেতা জোবায়ের প্রমুখ।

ড. করিম বলেন, মুসলমানদের প্রথম কিবলা পবিত্র আল-আকসা মসজিদে মুসলমানদের নামায আদায়ে বাধা প্রদান ও মুসলমানদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে হতাহত করে ইসরাইলী সরকার ন্যক্কারজনক কাজ করেছে। গত ২১ জুলাই দখলদার বাহিনীর হামলায় আল আকসার খতিবসহ সহ¯্রাধিক মুসলমান আহত হয়েছেন। শাহাদাত বরণ করেছেন ৩ জন। মূলত ইসরাইলী বাহিনী পবিত্র আল-আকসা মসজিদে মুসলমানদের নামাজ আদায়ের জন্য প্রবেশ করতে না দিয়ে জাতিসংঘ কর্তৃক ঘোষিত মানবাধিকার সনদ চরমভাবে লংঘন করেছে। ইহুদীবাদীদের নির্মমতা, নিষ্ঠুরতা ও বর্বরতার বিরুদ্ধে সারা বিশ্বের মুসলমানরা প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে উঠেছে। মুসলমানদের প্রথম কিবলা পবিত্র আল-আকসা মসজিদকে ইহুদীদের কবল থেকে মুক্ত করা মুসলিম উম্মাহর ঈমানী দায়িত্ব । 

তিনি বলেন, আল আকসা মসজিদে ইসরাইলী বাহিনীর সন্ত্রাস ও বর্বরোচিত হামলা ইতিহাসের সকল নিষ্ঠুরতা ও নির্মমতাকে হার মানিয়েছে। মারাত্মক গোলাগুলীর ঘটনায় গত সপ্তাহে ইসরাইল কর্তৃপক্ষ আল-আকসা মসজিদটি বন্ধ করে দিলে পশ্চিম তীর জুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে পুরো মুসলিম বিশ^ উত্তাল হয়ে উঠেছে এবং আল আকসা রক্ষায় মুসলিম উম্মাহ এখন ঐক্যবদ্ধ। মূলত মুসলমানদের  পবিত্র স্থান সুরক্ষা করাই কেবল নয় বরং শত্রুদের থেকে অধিকতর নিরাপদ করার আবশ্যকতাও দেখা দিয়েছে। তাই আল আকসা মসজিদ রক্ষায় মুসলিম বিশ^কেন ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলবে হবে। তিনি দখলদার বাহিনীকে আল আকসার দখলদারিত্ব থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানান।

বিশ^ মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল্ আকসা মসজিদে মুসলমানদের নামাযে বাধা প্রদান এবং ইসরাইলী ইহুদি কর্তৃক দখল করার ষড়যন্ত্র বিশে^র ঈমানদার মুসলমানরা বরদাশত করতে পারে না। আল্ আকসা মসজিদ মুসলমানদের প্রথম ‘কাবা’। এই মসজিদে ইহুদীদের নিয়ন্ত্রন এবং ফিলিস্তিনি মুসলমানদেরকে তাদের জন্মস্থান থেকে বহিস্কার বিশ^ বিবেক মেনে নিতে পারে না। অবিলম্বে আল্ আকসা মসজিদকে মুক্তি করার এবং ফিলিস্তিনি মুসলমানদের স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেয়ার দাবীতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ দিবস উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর উদ্যোগে থানায় থানায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন।

 কোতোয়ালী দক্ষিণ সংগঠনিক থানা জামায়াতের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ নগর জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য ও থানা আমীর ফয়সাল মুহাম্মদ ইউনুছের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মকবুল আহমদ ও ছাত্রশিবির নেতা রবিন প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

ডবলমুরিং থানা জামায়াতের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ নগর জামায়াতের মজলিশে শূরার সদস্য ও থানা আমীর ফারুকে আজমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা মুহাম্মদ লোকমান, রায়হান মাহমুদ,হযরত আলী, আমিনুল ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

বাকলিয়া থানা জামায়াতের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ এম.এইচ.হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশ বক্তব্য রাখেন,জামায়াত নেতা মুজিবুর রহমান, এম.এ.মহিত ও ছাত্রনেতা ইয়াছিন আরাফাত প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

ই.পি.জেড থানা জামায়াতের উদ্যোগে নগর জামায়াতের মজলিশে শূরার সদস্য ও থানা আমীর এম.এস.হকের সভাপতিত্বে এক বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা কামাল উদ্দিন ও মোহাম্মদ ইয়াকুব প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

চকবাজার থানা জামায়াতের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশ নগর জামায়াতের মজলিশে শূরার সদস্য ও থানা সেক্রেটারী এ.কে আনোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা শাহেদুল ইসলাম চৌধুরী,রফিকুল ইসলাম, শ্রমিক নেতা সোয়াইবুল ইসলাম,ছাত্র নেতা জহিরুল ইসলাম ও জসিম উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। এছাড়াও নগরীর অন্যান্য থানায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনা অফিস : মুসলমানদের প্রথম কিবলা পবিত্র আল-আকসা মসজিদে মুসলমানদের নামাজ আদায় করার জন্য প্রবেশ করতে দখলদার ইসরাইলীদের বাধা প্রদান এবং মুসলমানদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে হত্যা ও আহত করার ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে খুলনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার খুলনা মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর উদ্যোগে নগরীতে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। 

বিক্ষোভ মিছিল শেষে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন খুলনা মহানগরীর সহকারী সেক্রেটারি আবু রাকশান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এস এম অলিউল্লাহ, এম রহমান, মোশাররফ আনসারী, আব্দুল্লাহ মনা, মো. হেলাল উদ্দীন, মো. মিম যুবায়ের, মো. জুমমান প্রমূখ।

গাজীপুর সংবাদদাতাঃ আল-আকসায় মুসলমানদের উপর ইসরাইলীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার গাজীপুর মহানগর জামায়াতের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গাজীপুর সিটি আমীর অধ্যক্ষ ইবনে ফয়েজের নেতৃত্বে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বাইপাস এলাকা থেকে শুরু হওয়া বিক্ষোভ মিছিলটি মহাসড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কলম্বিয়া এলাকায় এসে পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়। এসময় সিটি জামায়াতের সাংগঠনিক সেক্রেটারি আফজাল হোসাইনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য প্রদানকালে সিটি আমীর বলেন, ফিলিস্তিনে ইসরাইলের বর্বর আগ্রাসন বিশ্ব সভ্যতার জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি। আল আকসা মসজিদে মুসলমানদের প্রবেশে বাঁধা প্রদান ও বর্বরোচিত হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, সময় এসেছে সম্মিলিতভাবে ইসরাইলী আগ্রাসন রুখে দাঁড়াতে হবে। ইসরাইলকে শীর্ষ সন্ত্রাসী রাষ্ট্র হিসেবে আখ্যা দিয়ে সিটি আমীর বলেন, ইসরাইল মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করে চলছে। এর জন্য তাকে অবশ্যই কঠিন খেসারত দিতে হবে। তিনি জাতিসংঘ এবং ওআইসিসহ বিশ্ব সংস্থাগুলোকে ইসরাইলী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অন্যান্যের মাঝে অংশ নেন সিটি জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মুহাম্মদ হোসেন আলী, অফিস ও প্রচার সেক্রেটারি ইরফানুল হক, মহানগর শিবির সেক্রেটারি মিজানুর রহমান, জামায়াত নেতা হাফেজ মোতালিব হোসেন, আশরাফ আলী কাজল, ইখলাসউদ্দিন, জিয়াউর রহমান, মনির হোসেন, মহিউদ্দিন, আনোয়ার হোসেন ভুঁইয়া, গোলাম মোস্তফা, শ্রমিক নেতা নূরে আলম ভুঁইয়া প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা: মুসলিম সভ্যতার তৃতীয় পবিত্র স্থান মসজিদুল আকসায় ইহুদী আধিপত্য প্রতিষ্ঠার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল করে নারায়ণগঞ্জ জেলা জামাায়াতে ইসলামী।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাাড়ে নয়টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ কাঁচপুর নয়াবাড়ি এলাকায় মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা জামায়াতে ইসলামী। বিপুল সংখ্যক জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে মিছিলটি নয়াবাড়ি এলাকা থেকে মহাসড়কের প্রায় তিন কিলোমিটার অতিক্রম করে মহাসড়কের এক পাশে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন। এসময় বক্তারা ঈসরাইলী বাহিনীর নির্লজ¦ কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বক্তারা বলেন, ইহুদীদের সকল প্রকার ষড়যন্ত্রকে মোকাবেলা করে মসজিদুল আকসা ও আকসা নগরীকে রক্ষা করবে মুসলমানরা। সারা পৃথিবীর মুসলমানদের রক্তের বিনিময়ে হলেও পবিত্র এই নগরীকে রক্ষা করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ মুসলিমরা। এসময় বক্তারা সহিংসতা দূূরীকরন ও ফিলিস্তিনী মুসলমানদের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য দ্রুত বিশে^র সকল মুসলীম নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। পরে বিশে^ নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য সংক্ষিপ্ত দোয়ার মাধ্যমে কর্মসূচীর সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

মসজিদুল আকসার প্রবেশ পথে নিরাপত্তা ও তল্লাশি গেট বসিয়ে মসজিদকে ঘিরে রাখা, মুসলমানদের জুমার নামাজ আদায়ে বাধা দেয়া এবং নিরীহ ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরাইলের বর্বর হামলার প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী মৌলভীবাজার পৌরসভা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মৌলভীবাজার শহরের সিলেট রোড থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে এম. সাইফুর রহমান রোডে সমাবেশে মিলিত হয়।

মিছিল পরর্বতী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী মৌলভীবাজার পৌরসভার আমীর ইয়ামির আলী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলা জামায়াতের আমীর শাহ আলাউদ্দীন, ছাত্রশিবির মৌলভীবাজার শহর সভাপতি মুর্শেদ আহমেদ চৌধুরী ও সাবেক শহর সভাপতি ফখরুল ইসলাম সহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

সিলেট ব্যুরো : সিলেট মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ফিলিস্তিনে ইসরাইলের বর্বর আগ্রাসন বিশ্ব সভ্যতার জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি। আল আকসা মসজিদে মুসলমানদের প্রবেশে বাধা প্রদান ও বর্বরোচিত হামলা মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে রক্তক্ষরনের শামিল। ইসরাইল ইসলাম ও বিশ্ব মানবতার বিরুদ্ধে যে অপরাধ করে চলছে, এর জন্য তাদেরকে অবশ্যই কঠিন খেসারত দিতে হবে। ইসরাইলি সন্ত্রাসীদের লাগাম টেনে ধরার সময় এসেছে সম্মিলিতভাবে ইসরাইলী আগ্রাসন রুখে দাঁড়াতে হবে। জাতিসংঘ এবং ওআইসিসহ বিশ্ব সংস্থাগুলোকে ইসরাইলী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার জামায়াত কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ফিলিস্তিনের আল-আকসায় মুসলমানদের উপর ইসরাইলীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে নগরীর বন্দরবাজার এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করে সিলেট মহানগর জামায়াত। মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন।

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য দেন- সিলেট মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদ, জামায়াত নেতা মুফতী আলী হায়দার, মশাহিদ আহমদ, আনোয়ার হোসেন, মাওলানা মুজিবুর রহমান, মু. আজিজুল ইসলাম, চৌধুরী আব্দুল বাছিত নাহির ও ইসলামী ছাত্রশিবির সিলেট মহানগর সেক্রেটারী নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

 নেতৃবৃন্দ বলেন, গোটা বিশ্ব জুড়ে মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে সুগভীর ষড়যন্ত্র চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় ইহুদি রাষ্ট্র ইসরাইল ফিলিস্তিনের মুসলমানদের উপর বর্বর হামলা চালাচ্ছে। আল আকসা মসজিদে মুসলমানদের জুম্মার নামাজে শুধু বাধা প্রদান করেই ক্ষান্ত হয়নি নামাযরত মুসল্লীদের উপর বর্বর হামলা চালিয়েছে। এই হামলা শুধু ফিলিস্তিনের মুসলমানদের উপর নয়, গোটা মুসলিম উম্মাহর উপর হামলার শামিল। সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইলীদের বর্বর হামলার প্রতিবাদে মুসলিম বিশ্বকে স্বোচ্ছার হতে হবে।

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা ঃ কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আল আকসায় ইহুদী নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার প্রতিবাদে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কুড়িগ্রাম শহর শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শহর আমীর মাস্টার আব্দুর সবুর খানের নেতৃত্বে মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত থাকেন- জেলা শিবির এর সেক্রেটারী মোস্তফা কামাল, অফিস সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, জামায়াত নেতা মিজানুর রহমান, ফয়েজ উদ্দিন, আব্দুল হালিম রানা প্রমূখ।

বগুড়া অফিস ঃ ইসরাইলী নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক পবিত্র আকসা মসজিদে মুসলমানদের প্রবেশে বাধা এবং মুসল্লীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে বগুড়ায় বিক্ষোভ করেছে জামায়াত। কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার জোহর নামাজের পর বগুড়া দ্বিতীয় বাইপাস সড়কের সাবগ্রাম এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের কলেছে বগুড়া শহর জামায়াত। এসময় নেতাকর্মিরা অবিলম্বে আল-আকসা মসজিদ থেকে সেনা প্রত্যাহার এবং আল-আকসা মসজিদ থেকে সবধরনের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।

ফিলিস্তিনের আল আকসা মসজিদে ঈসরাইলী সেনাদের হামলা,মুসুল্লী হত্যা ও নামায পড়তে নানামুখী বাধার প্রতিবাদে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী  কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে গতকাল বৃহস্পতিবার রংপুর মহানগরীর উদ্যোগে জামায়াতের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত।

রংপুর মহানগর জামায়াতের উদ্যোগে রংপুর মহানগরের প্রধান প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে পথসভায় বক্তাগণ বলেন, মসজিদে আল-আকসা পৃথিবীর দেড় শত কোটি মুসলমানের কলিজার টুকরা প্রথম কিবলা। জায়নবাদী অভিসপ্ত ইহুদীরা আজ দেড় শত কোটি মুসলমানের কলিজার টুকরা আল-আকসা মসজিদ অস্ত্রেও মুখে অবরুদ্ধ করে রেখে গোটা পৃথিবীর দেড় শত কোটি মুসলমানের কলিজায় আগুন লাগিয়েছে। অবিলম্বে  ৯০% মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ সরকারকে ইহুদীবাদী ইসরাইলের এহন ঘৃণ্য তৎপরতার কঠোর ভাষায় প্রতিবাদ জানানের আহ্বান জানান। ইসলাম ধর্মীয়ইবাদতের প্রতিষ্ঠান প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদ  নিয়ে সকল প্রকার তামাশা বন্ধ করার কার্যকর ভূমিকা পালন করার জন্য জাতীসংঘের প্রতি জোর  আহ্বান জানান।

রাজশাহী অফিস : গতকাল বৃহস্পতিবার তৌহিদী মুসলিম জনতার উদ্যোগে মুসলমানদের প্রথম কেবলা বায়তুল আকসা মসজিদ রক্ষার্থে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ড. আব্দুস সালাম আল মাদানী, হাফিজ মো. মোবারক করিম, হাফিজ মো. শাহদাৎ হোসেন , হাফিজ মো. হাসান মামুন, হাফিজ মো. খাইরুল ইসলাম, মাওলানা মো. আব্দুল্লাহ, মাওলানা আবুল কালাম আজাদ (বাবু) প্রমুখ। বিশ্ব মুসলিমের জন্য দোয়া করে মানববন্ধন শেষ  করা হয়।

ফেনী সংবাদদাতা :  ফেনীতে জামায়াতে ইসলামী ফেনী শহর শাখার উদ্যোগে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শহরে ট্রাংক রোডে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের ট্রাংক রোড  থেকে বের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শেষ হয়। বিক্ষোভে জামায়াত-শিবিরের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ