মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সাতকানিয়ায় পুলিশ-ট্রাক শ্রমিক সংঘর্ষ সার্জেন্টসহ আহত ৪

সাতকানিয়া চট্টগ্রাম থেকে সংবাদদাতা : গত শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার কালিয়াইশ ইউনিয়নের কাটগড় বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের উপর ট্রাক রাখতে নিষেধ করার জের ধরে হাইওয়ে পুলিশের সাথে ট্রাক শ্রমিকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় একজন সার্জেন্টসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। 
স্থানীয়  সূত্রে জানা গেছে শনিবার সন্ধ্যার একটু পর থেকে বিদ্যুৎ অফিসের সামনের মহাসড়কে ট্রাক শ্রমিকরা খালি ও মালবোঝাই ট্রাক রাখা শুরু করে। একপর্যায়ে মহাসড়কের দু’পাশেই ট্রাকের সারি পড়ে যায়। এ সময় এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হওয়া শুরু হলে খবর পেয়ে সার্জেন্ট মোহাম্মদ নওশাদ ফরহাদের নেতৃত্বে দোহাজারী হাইওয়ে থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে শ্রমিকদের মহাসড়কে ট্রাক রাখতে নিষেধ করে। নিষেধের পরও শ্রমিকরা পুলিশের কথা কানে না তুলে ট্রাক সরিয়ে না নিয়ে আরো গাড়ি রাখা অব্যাহত রাখে। নিষেধ অমান্য করার ঘটনায় শ্রমিকদের সাথে হাইওয়ে পুলিশের কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এক সময়ে শ্রমিকরা পুলিশের উপর হামলা শুরু করে। সংঘর্ষের সময় পুলিশের সদস্য সংখ্যা কম থাকায় শ্রমিকরা উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের বেধড়ক পেটায়। পিটুনিতে উপস্থিত সার্জেন্টসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। আহতরা হলেন সার্জেন্ট মোহাম্মদ নওশাদ ফরহাদ, কনস্টেবল মোহাম্মদ শাহজালাল (নং-২০৬), কনস্টেবল মোহাম্মদ রাসেল (নং-২৯৩) ও কনস্টেবল মোহাম্মদ রাজীব (নং-৫০৩)। আহতদেরকে দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে হাইওয়ে থানার অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করে। কিন্তু ব্যর্থ হয়ে সাতকানিয়া থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স এনে পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। চন্দনাইশ সাতকানিয়া ট্রাক শ্রমিক সমবায় সমিতির সাধারন সম্পাদক আবদুল মালেক বলেন, এ ঘটনায় মোহাম্মদ ফোরকান নামের একজন শ্রমিকও আহত হয়েছেন।
ঘটনার পরপর দু’টি ট্রাক আটক করে নিয়ে গেছে হাইওয়ে পুলিশ। দোহাজারী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা   মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, অনেকদিন থেকেই মহাসড়কে বাস ও ট্রাক না রাখার ব্যাপারে হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের সাথে মতবিনিময় করে নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু তারা তা না মেনে   শনিবার  সন্ধ্যার পর থেকে বিদ্যুৎ অফিসের সামনে গাড়ি রাখা শুরু করে। হাইওয়ে পুলিশের একটি দল গাড়ি রাখতে নিষেধ করলে তারা পুলিশের উপর হামলা করে এবং এতে চার পুলিশ সদস্য আহত হন। ঘটনার ব্যাপারে একটি মামলা করার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ