শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

নবাবগঞ্জে পূর্ব শত্রুতায় বাড়িঘরে হামলা ॥শিক্ষার্থীসহ ৩ নারী গুরুতর আহত

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতা : গত রোববার সকালে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা বাড়িতে হামলা চালিয়ে শিক্ষার্থী সহ ৩ নারী গুরুতর আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। উপজেলার ২নং বিনোদনগর ইউনিয়নের বড়মাগুরা গ্রামের লিয়াকত আলীর পুত্র শামীম ইকবাল অভিযোগ করে জানান, একই গ্রামের ফজলুল তার পুত্র হিটলার, সোহেল, কোয়েল সহ ৩০ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তার বসতবাড়িতে চালায়। এর কারণে বাড়িতে থাকা রিপন (১২) একজন শিক্ষার্থী সহ আইরিন বেগম, আরিফা, আকতারা বেগমকে বিবস্ত্র করে মারপিট করে। পরে তারা শামীম ইকবালের বাড়ি ভাংচুর করে। বর্তমানে আহতরা নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ সোহেল এবং কোয়েলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানায়, তাদের বাড়িতে হামলা করা হয়নি। অন্যায়ভাবে আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে শামীম জানান।
২ জন গুরুতর আহত : দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জমিতে আমন রোপন চারা লাগাতে গিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে বৃদ্ধসহ ২ জন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। উপজেলা মাহমুদপুর ইউনিয়নের পূর্ব ফতেপুর গ্রামে জমিতে আমন রোপন করায় প্রতিপক্ষরা হামলা করে। এ ঘটনায় ওই গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন (৭০), তার পুত্র মমিরুল ইসলাম (৩৫) ও মেহেদী (২৮) মাথায় গুরুতর আহত হয়েছেন। ওই গ্রামের ইউপি সদস্য মো. জাকিরুল ইসলাম জানান, একই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের সাথে  ২৫ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ঘটনার দিন প্রতিপক্ষরা রোপা আমনে বাধা দিতে গেলে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় নবাবগঞ্জ থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে বলে বৃদ্ধ তোফাজ্জল হোসেন জানান।
স্ত্রীর বিরুদ্ধে চুরির মামলা : দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে স্ত্রীর বিরুদ্ধে আদালতে চুরির মামলা দায়ের করেছে স্বামী। জানা গেছে, উপজেলার ৭নং দাউদপুর ইউনিয়নের কুতুব গ্রামের মছির উদ্দিনের পুত্র মহিদুল ইসলাম তার স্ত্রী রোমানা আক্তার চন্দনার বিরুদ্ধে চুরির মামলা দায়ের করে। আদালত থেকে মামলাটি সঠিক ও নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য ৭নং দাউদপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল আজিমকে দায়িত্ব দেয়। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান সঠিক তদন্ত না করে মিথ্যা প্রতিবেদন প্রেরণ করে বলে মামলার বাদী মহিদুল ইসলাম অভিযোগ করেন। সে আরোও জানায়, তার স্ত্রী অবাধ্য হওয়ায় গত ২৯শে জানুয়ারী ২০১৭ ইং তারিখে দিনাজপুর নোটারী পাবলিকে একতরফা তালাক দেন। স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করায় তাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। মামলার বাদী আরোও জানান, পুনঃ তদন্তের জন্য আদালতে নারাজী আবেদন করবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ