শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

জঙ্গি কানেকশনের অভিযোগে সেই বাড়ির মালিক শোন এ্যারেস্ট

ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) সংবাদদাতা : জঙ্গি কানেকশনের অভিযোগে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার বহুলালোচিত সেই বাড়ির মালিককে এবার গ্রেফতার করা হলো। গতকাল সোমবার কুষ্টিয়া আদালতের বিজ্ঞ বিচারক এম এম মোর্শেদ’র আদালতে বাড়ির মালিককে তোলা হলে তাকে সন্ত্রাস দমনে দায়ের করা ওই মামলায় শোন এ্যারেস্ট দেখানো হয়। মামলা নং জি আর ১০৩/২০১৭। এর আগে গত ২রা জুলাই ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে বাড়ির মালিককে আদালতে পাঠানো হয়েছিল। এই মামলায় গ্রেফতারকৃত অন্য আসামীরা হলো ঃ নব্য জেএমবির আমীর আইয়ুব আলী ওরফে আইয়্যুব বাচ্চু’র স্ত্রী তিথি (২৮), সেকেন্ড ইন কমান্ড আব্দুর রশিদ’র স্ত্রী মাহমুদা খাতুন ওরফে সুমাইয়া (২৭), জেএমবি’র সমন্বয়ক টলি খাতুন (৩৫)।
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার একটি বাড়ি জঙ্গি আস্তানা এমন সন্দেহে গত ১লা জুলাই শনিবার রাত ১২টা থেকে জঙ্গি দমনে কাজ করা কাউন্টার টেরিরিজম ইউনিট এবং ভেড়ামারা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ি থেকেই সুইসাইডাল ভেস্ট পরিহিত অবস্থায় এক নারী জঙ্গিকে প্রথমে আটক করে। পরে নারী জঙ্গি সুমাইয়া এবং সম্বন্বয়ক টলি খাতুনকে আটক করে বিপুল পরিমান বিস্ফোরক দ্রব্য, অত্যাধুনিক আগ্নেয়ান্ত্র, গান পাউডার উদ্ধার করে। জঙ্গি কনেকশনের অভিযোগে ওই দিনই আটক করা হয় বাড়ির মালিক নাসিমা খাতুন কে। রক্তপাতহীন এ অভিযানের নাম দেওয়া হয় অপারেশন ট্রিপিড পাঞ্জ। পরদিন ৩ নারী জঙ্গির বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা হয়। যার নং ১ তারিখ ঃ ০২/০৭/২০১৭। আর ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠানো হয় বাড়ির মালিক নাসিমা খাতুনকে।
 ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ নূর হোসেন খন্দকার জানিয়েছেন, বাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে জঙ্গি কানেকশনের অভিযোগ ছিল। সে কারণে দায়ের করা মামলায় শোন এ্যারেস্ট করার জন্য লিখিত আবেদন করে ছিলাম। আদালত বিচার বিশ্লেষণ করে আবেদনখানা আমলে নিয়ে ওই বাড়ির মালিককে শোন এ্যারেস্ট করে। তিনি জানান, আদালতের কাগজ পত্র পেলে রিমান্ড আবেদন সহ অনান্য ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ