সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

স্ত্রীকে নির্যাতন থেকে রক্ষা ও ফিরে পেতে মনিরুলের সাংবাদিক সম্মেলন

সাপাহার (নওগাঁ) সংবাদদাতা : সাপাহার রিপোর্টার্স ফোরামে নব মুসলিম স্ত্রীকে হিন্দু ও নামধারী কিছু কুচক্রী মহলের শারীরিক নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষার জন্য সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রেখেছে ভুক্তভোগী স্বামী মনিরুল ইসলাম।
গতকাল রোববার বিকেল ৩টার  দিকে রিপোর্টার্স ফোরামের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে ভুক্তভোগী স্বামী উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের হযরত আলীর পুত্র মনিরুল ইসলাম(২৫)। তিনি লিখিত বক্তব্যে সাংবাদিকদের জানান, উপজেলার অন্তর্গত সাহাপাড়া গ্রামের সুনীল সাহার মেয়ে টুম্পা রাণী সাহা (২০)’র সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ চলাফেরার এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে গভীর ভালোবাসার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে তারা গত ২২ মে নওগাঁ নোটারি পাবলিকে উপস্থিত হয়ে প্রথমে ইসলাম গ্রহণ করে। তবে নাম রাখে জান্নাত ইসলাম মোনা। ওই দিনই নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে বিবাহ সম্পন্ন করেন। পরে ২৫ শে মে কাজী অফিসে উপস্থিত হয়ে শরীয়ত অনুযায়ী যথারিতী তাদের বিবাহ রেজিস্ট্রি করে নেয়। পরবর্তী সময়ে মনিরুল তার নব মুসলিম স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে আনতে চাইলে ওই মেয়ের বাবা-মা তাকে জোর জবরদস্তি করে বাড়িতে আটকিয়ে রাখে। কিছু কুচক্রী মহলের জোর চক্রান্তে ওই মেয়েকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতে থাকে। শুধু তাই নয় সে যদি পুনরায় হিন্দু ধর্মে ফিরে না আসে তাহলে তাকে জ্যান্ত মেরে ফেলার হুমকি দেয় ও তার মুসলিম স্বামীকে  তালাক প্রদাণের জন্য জোর অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। আর যদি এ ধরনের কাজ না করে তাহলে তাকে মেরে পিটে তার স্বামীকে তালাক দেয়ার জন্য বাধ্য করা হবে মর্মেও হুমকি প্রদান করছে ওই কুচক্রী মহল। বর্তমানে তাকে লোহার শেকল দিয়ে বেঁধে রেখে একের পর এক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মনিরুল আরো জানায়, সে নিরুপায় হয়ে তার উপযুক্ত প্রমাণাদি সংযুক্ত করে সাপাহার থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছে। বর্তমান সময়ে তার সদ্য নব মুসলিম স্ত্রীকে নিজের কাছে ফিরিয়ে পাওয়ার জন্য স্থানীয় প্রশাসনসহ ঊর্ধ্বতন প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ