বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সোনাদিয়ায় আটকে পড়া জাহাজটিতে লুটতরাজ

কক্সবাজার সংবাদদাতা : মহেশখালীর সোনাদিয়ার ডুবোচরে আটকা পড়া স্ক্র্যাপ জাহাজটিতে গত ৬দিন ধরে লুটতরাজ চলছেই। এম.ভি হাই (গঠ ঐওএঐ) নামের এই জাহাজটি মালয়েশিয়া  থেকে নিলামে কেনা। যার আই.এম.ও নাম্বার ৮৬০৬০৬৮। জাহাজটি এল.সি পরিশোধ করে তৃতীয় পক্ষের কাছে বিক্রয়ের জন্যে চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়ার কথা ছিল বলে জানিয়েছে জাহাজটির ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান ‘সিম্নি শীপিং লাইন’।  খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জাহাজটিকে টেনে আনতে সাহায্যকারী জাহাজ ‘এ.এস.এল লিও’র ত্রুটিপূর্ণ ভূমিকা থাকায় গত ১২ জুন পরস্পরের সাথে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ফলে সাহায্যকারী জাহাজটি নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছলেও স্ক্র্যাপ জাহাজ ‘এম.ভি হাই’ ভাসতে ভাসতে মহেশখালীর সোনাদিয়া ডুবোচরে আটকে পড়ে। আটকে পড়ার পর দিন  থেকে জাহাজটির ভেতরে থাকা মালামাল ইতোমধ্যে ব্যাপকভাবে লুট হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে ‘সিম্নি শীপিং লাইন’ নামের একটি লোকাল এজেন্ট প্রতিষ্ঠান জাহাজটির মালিকানা দাবি করেছে। প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার দুলাল জানিয়েছেন, প্রতিদিন কমপক্ষে শ’ দুইশ’ লোক জাহাজটি লুটপাট করেই যাচ্ছে। এবং সেখানে তাদের ২০/৩০ জন লোক থাকলেও স্থানীয় লুটপাটকারী ও ডাকাতদের আক্রমণের ভয়ে সেখানে পাহারা দিতে পারছেনা। একারণে জাহাজটিতে বিক্রয়যোগ্য অবশিষ্ট আর কিছু থাকবেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
তবে মহেশখালী থানা পুলিশ জানিয়েছে তারা সেখানে তড়িৎ ব্যবস্থা নিয়েছে। এবং লুণ্ঠিত কিছু মালামালও উদ্ধার করেছে।
তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, জাহাজটি ১৯৮৬ সালে জাপানে তৈরি করা হয়েছিল। মালয়শিয়া থেকে জাহাজটি বাংলাদেশে আনার সময় পেরুর পতাকাবাহী ছিল। জাহাজটির ওজন ৮,০৯৭  মে.টন। পরিত্যক্ত জাহাজটি সীতাকুন্ড শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডে বিক্রির জন্য চট্টগ্রাম বন্দরে নিয়ে আসা হচ্ছিল।
উল্লেখ্য, গত ১৩ জুন সোনাদিয়ার দু’টি দস্যুবাহিনী আটকে পড়া ওই জাহাজের ইঞ্জিন, লাইফবোর্ড, ৩০০টি মত তেলের ড্রাম, সমস্ত লাইফ জ্যাকেট, লোহার নোঙ্গর, রুম ফ্যান, টেবিল ফ্যান, ফ্রিজ, এসি, টিভি, ক্যাবলসহ মূল্যবান সামগ্রী লুট করে নিয়ে যায় বলে জানা গেছে। লুট করতে গিয়ে জলদস্যু দুই গ্রুপের মধ্যে  গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে। জাহাজে  কোন  লোকজন না থাকায় স্থানীয়  লোকজনও জাহাজের মুল্যবান মালামাল লুট করে। গত ১৩ জুন খবর  পেয়ে  কোস্টগার্ড  সেখানে  গেছে বলে খবর পাওয়া যায়। তবে জাহাজটি গত ৬ দিন ধরে  সেখানেই পড়ে আছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ