ঢাকা, বুধবার 12 August 2020, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

মাউন্ট কার্সটেঞ্জে আটকা পড়েছেন মুসা ইব্রাহীম

অনলাইন ডেস্ক: ওশেনিয়ার সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট কার্সটেঞ্জ পিরামিডে দুই ভারতীয় সহআরোহীকে নিয়ে আটকে পড়েছেন বাংলাদেশের পর্বোতারোহী মুসা ইব্রাহীম।শনিবার তাদের খাবার শেষ হয়ে গেছে। বৈরি আবহাওয়ার কারণে সেখানে খাবার পাঠানো যাচ্ছে না বলে জানা গেছে।

মুসা ইব্রাহীমের বোন নূর আয়েশার উদ্ধৃত করে মুসার শুভানুধ্যায়ী ও প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশে কর্মরত মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন: ওশেনিয়া মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট কার্সটেঞ্জ পিরামিড জয় করতে গিয়ে মুসা ইব্রাহীম তার দলসহ অটকা পড়ে আছেন। খাবার সঙ্কটে ভুগছেন তারা।

আমি বাংলাদেশের প্রথম এভারেস্টজয়ী মুসা ইব্রাহীমের কথা বলছি। তিনি কথা দিয়েছিলেন; সাত মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত চূড়ায় উড়িয়ে দেবেন লাল সবুজের পতাকা। জাতিকে দেওয়া ওয়াদা পূরণ করতে গিয়ে আজ তিনি চরম বিপদগ্রস্ত। ওশেনিয়া (পাপুয়া নিউগিনি, ইন্দোনেশিয়া) মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট কার্সটেঞ্জ পিরামিড জয় করার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের তিন সদস্যের টিমের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুসা ইব্রাহীম। মাউন্ট কার্সটেঞ্জ জয় করতে গিয়ে প্রতিকূল আবহাওয়ায় বেজ ক্যাম্পে অটকা পড়ে আছেন আজ তিন দিন। খাবার সঙ্কটে ভুগছে পুরো টিম।

মুসার বড় বোন নূর আয়েশার সঙ্গে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কথা হয়। তিনি জানান, শনিবার সকালে হেলিকপ্টারের মুসা ও তার দলকে উদ্ধার করার কথা থাকলেও আবহাওয়া অনূকুলে না থাকায় তা সম্ভব হয়নি। পরে কী ঘটতে যাচ্ছে, তাও জানা নেই তার।

ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের সহায়তা চেয়েছেন তিনি। দূতাবাস থেকে তাকে জানানো হয়েছে, আগামী সোমবার পাপুয়া নিউগিনির সঙ্গে তারা যোগাযোগ করবেন। ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যায় কিনা, সেটিই আমার বড় আশঙ্কা।

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে মুসা ইব্রাহীম ২০১০ সালের ২৩ মে এভারেস্ট জয় করেন। এরপর ২০১১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর আফ্রিকা মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত কিলিমাঞ্জারোর চূড়া জয় করেন তিনি। তার সঙ্গী ছিলেন নিয়াজ মোরশেদ পাটওয়ারী ও এমএ সাত্তার।

২০১৩ সালের ২৬ জুন ইউরোপের সর্বোচ্চ (১৮ হাজার ৫১০ ফুট) পর্বত মাউন্ট এলব্রুস, ২০১৪ সালের ২৩ জুন উত্তর আমেরিকার সর্বোচ্চ (২০ হাজার ৩২০ ফুট) পর্বত মাউন্ট ডেনালি জয় করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ