বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

ঝালকাঠির মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে  দালালদের তুলকালাম কান্ড

 

ঝালকাঠি সংবাদদাতা: ঝালকাঠির মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে চিকিৎসকের সাথে যোগসাজশে রোগী ভাগিয়ে নেয়ার সময় স্টাফ ও দালালদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনায় স্থানীয়দের তোপের মুখে পড়েছে চিকিৎসক ডা. জোয়াহের আলী। রোববার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে সদর হাসপাতালের পিছনে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে। ঝালকাঠির মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের স্টাফ এবং স্থানীয় কয়েকজন জানান, মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রের ভর্তি হওয়া রোগী স্কয়ার ক্লিনিকের দালালরা ঢুকে ভাগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। সেই সাথে ভর্তি কাগজপত্র নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে দ্বায়িত্বে থাকা করুণা রানী দাস বাধা দেয়। এতে দালালরা ক্ষিপ্ত হয়ে তার উপর হামলা চালায়। এক পর্যায় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে দালালরা পালিয়ে যায়। এসময় ডা:  জোয়াহের আলী দালালদের পক্ষ নিলে স্থানীয়দের তোপের মুখে পরেন তিনি। অপরদিকে খবর পেয়ে স্কয়ার ক্লিনিকের ব্যবসায়ীক অংশীদার মামুন খলিফা লাঠি নিয়ে মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রে প্রবেশ করে অন্যান্য ক্লিনিকের দালালদের বের করতে চেষ্টা চালায়। এসময় মামুন বলেন, আমার ক্লিনিকে রোগী নিতে না পারলে কোন ক্লিনিকেই রোগী নিতে দেয়া হবে না। যদি পারো কেউ নে, দেখি কত সাহস। স্থানীয়দের অভিযোগ, ডা:  জোয়াহের আলী বিভিন্ন ক্লিনিকের সাথে চুক্তি করে দালালদের সহযোগিতায় মা ও শিশু  কল্যান কেন্দ্রের রোগিদের প্রাইভেট ক্লিনিকে পাঠিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছেন হাজার হাজার টাকা । আর সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রে রুগীরা। এ ব্যাপারে মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রের ডা: জোয়াহের আলী বলেন, কয়েকজন দালাল এসে ক্লিনিকের মধ্যে প্রবেশ করে কি কারণে যেন তর্কে জড়িয়ে পড়ে। আমি টের পেয়ে দালালদের বের করে দিয়েছি। পুনরায় কোন দালাল এলে পুলিশে দিবো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ