বৃহস্পতিবার ০৪ জুন ২০২০
Online Edition

খুলনায়  দুই খুন

খুলনা অফিস ঃ খুলনায় দু’টি হত্যাকান্ড ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার পৃথক দু’টি স্থান থেকে দু’জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

খুলনা মহানগরীতে ধারালো বটির কোপে শেখ মোস্তাক আলী ওরফে হোন্ডার ফকির (৬৪) নামে এক গ্যারেজ ব্যবসায়ী খুন হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর সোনাডাঙ্গা থানার ১নম্বর বয়রা ক্রস রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ নিহতের স্ত্রী রোজিনা বেগমকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে। নিহত মোস্তাক আলী স্থানীয় মৃত অখিল ফকিরের ছেলে। তিনি ইজিবাইকের গ্যারেজের ব্যবসা করতেন। 

সোনাডাঙ্গা থানার এস আই উজ্জল সরকার জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে তার ছেলে রাস্তি শেখ (২২) ধারালো বটি দিয়ে গলায় আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। ছেলেকে গ্রেফতারের চেস্টা চলছে। 

সোনাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোমতাজুল হক বলেন, ঘটনার কিছু আগে নিহতের স্ত্রী বটি দিয়ে মাছ কাটছিলেন। এ সময় স্বামীর সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। ঘটনাস্থলে ছেলেও উপস্থিত ছিল। কিন্তু স্ত্রী অথবা ছেলে বটি দিয়ে তার গলায় আঘাত করেছে, না-কি সে নিজেই বটি কেড়ে নিয়ে নিজের গলায় আঘাত করেছে-সেটি স্পষ্ট নয়। তদন্তের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্ত্রী রোজিনা বেগমকে থানায় নেয়া হয়েছে। ছেলেকেও গ্রেফতারের চেস্টা চলছে। নিহত মোস্তাক আলী কেসিসির ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজের ফুফাতো ভাই বলে জানান তিনি।

অপরদিকে খুলনায় মাথা বিহীন বস্তাবন্দী অজ্ঞাত পরিচয় একটি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রূপসা উপজেলার শ্রীফলতলা এলাকায় আঠারোবাকি নদীর ঘাট থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। 

শ্রীফলতলা পুলিশ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত আইসি কমল কৃষ্ণ দাস জানান, স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে আঠারোবাকি নদীর হিরো ব্রিক ফিল্ড নামক একটি ইটভাটার ঘাট থেকে বস্তাবন্দী মাথা বিহীন লাশটি উদ্ধার করা হয়। শুধুমাত্র ধড়টুকু পাওয়া গেছে, মাথা পাওয়া যায়নি। বাম হাত ভাঙ্গা এবং দুই পা রশি দিয়ে বাধা ছিল। এতে পঁচন ধরেছে। লাশটি উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। অন্য কোথাও গলা কেটে হত্যার পর লাশ বস্তাবন্দী করে নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হতে পারে বলে ধারণা করছেন তিনি। 

রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান,  আঠারবাকি নদীতে মাথাবিহীন লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার সময় ময়না তদন্তের জন্য  খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তিনি জানান, লাশটি পঁচে গলে যাওয়ায় আর মাথা না থাকায় লাশটির বয়স বোঝা যাচ্ছে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ