বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

নাটরে মোটরসাইকেল চুরির হিড়িক ॥ প্রশাসন নিরব

নাটোর সংবাদদাতা: নাটোরের সিংড়ায় মোটর সাইকেল চুরির হিড়িক ! প্রবাদ রয়েছে চোরের কোন ধর্ম নেই। আর সেই প্রবাদ এর সত্যতা মিলে সিংড়া উপজেলা প্রশাসনের নাকের ডগায় থেকে যখন দিনে-দুপুরে পর পর বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। এমন কি মসজিদে ইফতার ও নামাজরত ব্যক্তির মোটর সাইকেলটি যখন চুরি যায় তখনই বোধগম্য হয় চোরের কোন ধর্ম নেই। আর এবিষয়ে সিংড়া থানায় একাধিক বার জিডি বা মামলা করেও কোন লাভ হয়নি। সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার দুপুর ২টা থেকে সাড়ে ৩টার মধ্যে সিসি ক্যামেরা বেষ্টিত সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সামনে থেকে ওই অফিসেই কর্মরত টেকনিশিয়ান রফিকুল ইসলামের ১২৫সি সি বাজাজ ডিসকোভার লাল-কালো রংয়ের একটি মোটর সাইকেল চুরি হয়। তাৎক্ষণিক তিনি সিংড়া থানায় একটি জিডি (নং-১২৮৬) করেন এবং পরে মঙ্গলবার বিকেলে একটি এজাহার দাখিল করেন। এছাড়া সম্প্রতি ওই একই স্থান থেকে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলামের ১৩৫ সি সি ডিসকোভার, পাটকোল গ্রামের রওশন আলী ১০০ সিসি ডিসকোভার, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম স্বপনের ৮০ সিসি, জামতলী এলাকা থেকে উপজেলা পরিষদের নিজ নামীয় ১৫০সিসি পালসার, আ’লীগের মিলন হোসেনের ১৫০ সিসি পালসার, বালুয়া বাসুয়া জামে মসজিদ, কেন্দ্রিয় মসজিদ ও দমদমা মাদ্রাসায় নামাজরত অবস্থায় ৩টি মোটর সাইকেলসহ উপজেলা কার্যালয় থেকে আরো প্রায় ১০টি মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। আর বিষয়ে সিংড়া থানায় একাধিক জিডি ও মামলা করা হলেও একটিও উদ্ধার বা কোন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি বলে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন। এছাড়া রাতের আধাঁরে ভিভিন্ন বাসা বাড়ি থেকে প্রায় মোটর সাইকেল চুরি ঘটনা ঘটছে। তারপরও নেই কোন কার্যকর পদক্ষেপ। ইউএনও অফিসের টেকনিশিয়ান রফিকুল ইসলাম বলেন, তিনি চুরির বিষয়ে সিংড়া থানায় দুটি পৃথক জিডি ও এজাহার দাখিল করেছেন। তিনি আরো জানান, প্রায়ই ওই অফিসের সামনে থেকে মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। তারপরও কোন ব্যবস্থা নেই। এবিষয়ে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামীম হোসেন বলেন, উপজেলা পরিষদের মোটর সাইকেল চুরির বিষয়ে উপজেলা আইন শৃংখলা ও মাসিক সভায় একাধিকবার উপস্থাপন করা হলেও কোন কাজ হয়নি। এবিষয়ে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম বলেন, তিনি সিংড়া থানায় জিডি করেও কোন খোঁজ-খবর পাননি। সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সে এই থানায় যোগদানের পর একটি মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। আর চুরির বিষয়টি তিনি গুরুত্ব সহকারে দেখছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নাজমুল আহসান বলেন, তার অফিসের সামনে থেকে মোটর সাইকেল হারানো বিষয় নিয়ে তিনি নিজেই বিব্রত। এবিষয়ে পুলিশের কোন কার্যকর ভূমিকা নেই বলে জানান তিনি।

বই বিক্রয় কার্যক্রম শুরু : ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষার বিস্তার ঘটাতে নাটোর ইসলামিক ফাউন্ডেশনে ৩৫ শতাংশ হ্রাসকৃত মূল্যে বই বিক্রয় কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পহেলা রমযান থেকে শুরু এই কার্যক্রম পুরো রমযান মাস জুড়ে চলবে। কোরআনের বিভিন্ন তফসির, হাদিস শরীফ, সিরাতুল মুস্তফা, দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম, রমযান ও যাকাতের ফজিলতসহ ৫০০ শতাধিক বই এর সমাহার  থেকে ক্রেতারা বই কিনতে পারছেন। এছাড়া রয়েছে ইসলামের ইতিহাস: আদি ও অন্ত, বঙ্গবন্ধুর জীবনি, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ, ভাষা আন্দোলন, ছোটদের বিশ্বকোষ ইত্যাদি। ২৬ খন্ডের ইসলামী বিশ্বকোষের বিক্রয় মূল্যে ৫০ ভাগ ছাড় রয়েছে। প্রথম ও দ্বিতীয় রমযানে রোববার ও সোমবারে বই বিক্রি ২২ হাজার টাকা ছাড়িয়েছে বলে জানান বই বিক্রয় কেন্দ্রের সহকারী মো: আজিজুল হক টুকু। মধ্য রমযানে বই বিক্রির পরিমাণ বাড়ে জানিয়ে তিনি বলেন, সারা বছরের সম পরিমাণ বই রমযান মাসে বিক্রি হয়। বড়াইগ্রাম থেকে আসা জোয়ারী হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষক আব্দুল হামিদ বলেন, হ্রাসকৃত মূল্যে বই কিনতে প্রতিবছর রমযানের অপেক্ষায় থাকি। তিনি দৈনন্দিন জীবনে ইসলামসহ একাধিক বই কিনলেন। প্রায় সাড়ে আঠারো হাজার টাকা মূল্যমানের বই এর ক্রেতা মিজানুর রহমান জানান, হাদিস বিষয়ক বইগুলো ঢাকায় পাঠাবো। নাটোর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ পরিচালক মো: মতিয়ার রহমান বলেন, বই বিক্রির বৃদ্ধির জন্য মাইকিং, লিফলেট ও ব্যানারের মাধ্যমে প্রচারনা চালানো হচ্ছে।  ক্রেতাদের মাঝে বই কেনার আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ