বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ান -মিয়া গোলাম পরওয়ার

 

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ এর আঘাতে দেশের উপকূলীয় এলাকায় ছয়ের অধিক মানুষের মৃত্যু এবং হাজার হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ আশ্রয়হীন হয়ে পড়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি, সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার। তিনি কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের ফেডারেশনের সকল শাখায় ইতিমধ্যেই তদারকি টীম গঠন করে ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজখবর নিয়ে তাদের পাশে দাঁড়াতে নির্দেশ দিয়েছেন।

গতকাল বিবৃতিতে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন উপকূলে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র আঘাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ মোট ছয়জন নিহত এবং শত শত বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। অসংখ্য মাছের ঘের, গাছাপালা, ফসল ফলাদি উড়ে গেছে, জোয়ারের পানিতে কক্সবাজারসহ বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের তা-ব থেকে বাঁচতে যারা আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছিল তাদের অবস্থাও করুণ। আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে বিশুদ্ধ খাবার পানি ও খাবারের তীব্র সংকটের কারণে দুর্গতরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। 

মিয়া গোলাম পরওয়ার আরো বলেন, সাইক্লোন সেন্টারে যারা আশ্রয় গ্রহণ করেছে তাদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি, আহত ও অসুস্থদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ এবং গৃহহীন লোকদের জন্য গৃহ নির্মাণ সামগ্রী ও নিহতদের পরিবার-পরিজন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের উপযুক্ত পরিমাণ আর্থিক সাহায্য প্রদান করার জন্য তিনি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, সমাজের বিত্তবান ও শ্রমিক নেতাকর্মীসহ সবার প্রতি আহবান জানান। একইসাথে এই দুর্যোগ থেকে জনগণের জান-মালের হেফাজতের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোআ করেন।

শ্রমিকদের মাঝে ইফতার বিতরণ : শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন ঢাকা মহানগরী উত্তরের উত্তরা পূর্ব থানার উদ্যোগে স্থানীয় একটি মিলনায়তনে ইয়াতিম, মিসকিন ও শ্রমিকদের মাঝে ইফতার ও সেহরী সামগ্রী বিতরণ করা হয়। থানা সভাপতি মো. মহিউদ্দীনের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মিজানুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি লস্কর মোহাম্মদ তসলিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারি সেক্রেটারি এইচ এম আতিকুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা তানভীর আহমদ, আনোয়ার হোসেন মোল্লা, বসির উদ্দীন, হাসান আলী, আব্দুল লতিফ, মোশাররফ হোসেন ও রোমান প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে লস্কর মোহাম্মদ তসলিম বলেন, শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন একটি কল্যাণধর্মী সংগঠন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই সংগঠনটি আর্তমানবতার কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচেছ। গণমানুষের জন্য আমাদের এই কল্যাণকামীতা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে। আমাদের সাধ অনেক হলেও সামর্থ খুবই সীমিত। আমরা সে সীমিত সামর্থ নিয়েই প্রান্তিক শ্রেণির রোজাদারদের জন্য ইফতার ও সেহরী সামগ্রী নিয়ে এগিয়ে এসেছি। দুঃস্থ ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষের দুর্দশা লাঘবের দায়িত্ব রাষ্ট্রের। কিন্তু দেশে কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত না থাকায় জনগণ রাষ্ট্রের কল্যাণ থেকে বঞ্চিত। তিনি দেশকে কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ