ঢাকা, সোমবার 1 June 2020, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

কাবুলে গাড়িবোমা বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮০

অনলাইন ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের কাছে বিদেশি দূতাবাস এলাকায় গাড়িবোমা বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা অন্তত ৮০ জন বলে জানা গেছে।

বুধবার সকালের এ বিস্ফোরণে আরও ৩৫০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছে বলে আফগানিস্তানের জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সকালের ব্যস্ত সময়ে চালানো এ হামলায় হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন তারা। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে ভয়াবহ ওই বিস্ফোরণে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের চিত্র দেখা গেছে। বিস্ফোরণসস্থলের আশপাশের বেশ কয়েকটি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি রাস্তা ও রাস্তায় থাকা বহু গাড়ি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে।    

শক্তিশালী ওই বিস্ফোরণে পর রাজধানীর কেন্দ্রস্থলের জানবাক স্কয়ার এলাকাটি থেকে কালো ধোঁয়ার মেঘ উঠতে দেখা গিয়েছিল। 

কাবুল পুলিশের মুখপাত্র বশির মুজাহিদ জানিয়েছেন, জার্মান দূতাবাসের প্রবেশে মুখের কাছে বিস্ফোরণটি ঘটানো হয়েছে। 

“জার্মান দূতবাসের কাছে একটি গাড়িবোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। তবে ওই এলাকায় আরো বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দূতাবাস ও দপ্তরও রয়েছে,” বলেছেন তিনি।

আহতদের কাবুলের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আফগানিস্তানের জনস্বাস্থ্য বিভাগের এক মুখপাত্র।  

ওই বিস্ফোরণ স্থলটি ভারতীয় দূতাবাস থেকে কয়েকশত মিটার দূরে এবং ভারতীয় দূতাবাসের সব কর্মী নিরাপদ আছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

বিস্ফোরণস্থল থেকে কয়েকশ মিটার দূরে ঘরবাড়ির দরজা-জানালা উড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। 

বিস্ফোরণের পর আহতদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে হাসপাতালে। ছবি: রয়টার্স বিস্ফোরণের পর আহতদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে হাসপাতালে। ছবি: রয়টার্স বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডুলি উঠতে দেখা গেছে। ছবি: এনডিটিভি বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডুলি উঠতে দেখা গেছে। ছবি: এনডিটিভি তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তালেবান বিদ্রোহীদের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ঘটনার বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করছে তারা।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে কাবুলে বেশ কয়েকটি প্রাণঘাতী হামলা চালানো হয়েছে। এতে আফগানিস্তানজুড়ে নিরাপত্তা পরিস্থিতি নাজুক হয়ে পড়ার বিষয়টি পরিষ্কার হয়েছে। 

চলতি মাসের প্রথমদিকে নেটো জোটের একটি সামরিক বহর কাবুলে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস অতিক্রম করাকালে এক আত্মঘাতী বিস্ফোরণে অন্তত আটজন বেসামরিক নিহত হন।

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

গত মার্চে কাবুলে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে একটি সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসকের ছদ্মবেশে ধরে আসা বন্দুকধারীদের হামলায় ৪৯ জন নিহত হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ