বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার ও একজনের আত্মহত্যা

রাজশাহী অফিস : রাজশাহীতে দুই নারীর অপমৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে গোদাগাড়ীতে এক নারীর টয়লেট থেকে বস্তাবন্দী লাশ এবং দুর্গাপরে আরেক নারী বিষপানে আত্মহত্যা করেন।
বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীর গোদাগাড়ীর দিগ্রামে পরিত্যক্ত টয়লেট থেকে ফজেল আলীর স্ত্রী ফুলেরা বেগমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। ফুলেরা বেগমের স্বামী ফরজেল আলী রাজশাহী শহরে রিকশা চালায়। তার তিন মেয়ে ও এক ছেলে আছে। মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেছে। আর একটি মাত্র ছেলে ঢাকায় স্ত্রী-সন্তান নিয়ে থাকে। ফুলেরা বেগম বাড়ীতে একাই বসবাস করতেন। বুধবার দিবাগত রাতে ফুলেরা বেগম ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত এলাকাবাসী তার কোনো সাড়া-শব্দ না পেয়ে এলাকাবাসীর মাঝে সন্দেহ দেখা দেয়। পরে এলাকাবাসী আশেপাশের লোকজনকে নিয়ে ঘরে প্রবেশ করলে ঘরের ভিতর রক্ত দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু ওই নারীকে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক খোঁজাখুঁজি শেষে গোদাগাড়ী মডেল থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ বাঁশঝাড়ের মাঝে তার ব্যবহৃত টয়লেটের ভিতর থেকে বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে।
গৃহবধূর আত্মহত্যা
দুর্গাপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে আম্বিয়া বেগম (২৮) নামের এক গৃহবধূ বিষপান করে আত্মহত্যা করে। তিনি উপজেলার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের বজলুর রহমানের স্ত্রী। গত বুধবার সকালে আম্বিয়া বেগম তার স্বামী বজলুর রহমানের উপরে অভিমান করে ঘরের ভিতরে সবার অজান্তে বিষপান করে। এসময় তার বাড়ির লোকজন টের পেলে আম্বিয়াকে দ্রুত উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। এসময় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে নগরীর তালাইমারীতে মারা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ