শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

গোয়াইনঘাটে পল্লী বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে প্রাণ গেল নানা-নাতীর

গোয়াইনঘাট (সিলেট) সংবাদদাতা : সিলেটের গোয়াইনঘাটে পল্লী বিদ্যুতের অবহেলায় প্রাণ গেল নানা-নাতীর। গতকাল শুক্রবার সকালে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মৃত্যু হয় তাদের। নিহতরা হলেন উপজেলার তোয়াকুল ইউনিয়নের তুরুকবাগ গ্রামের সফর আলীর পুত্র ফখর উদ্দিন (৬০) ও তার নাতী পেকের খাল গ্রামের কুতুব উদ্দিনের পুত্র মিজানুর রহমান (১৪)। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতের ঝড় বৃষ্টিতে পল্লী বিদ্যুতের মেইন লাইনের তার ছিড়ে রাস্তার উপর পড়ে যায়। গতকাল সকালে সেই রাস্তা ধরে হাঁটার সময় মিজানুর বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে মিজানুরকে উদ্ধার করতে তার নানা এগিয়ে এলে তিনিও বিদ্যুতের তারে আটকে যান। এ সময় ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অবহেলাকেই দায়ী করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, লাইন ছিড়ে রাস্তার উপর পড়ে থাকা অবস্থায় বিদ্যুৎ চালু করায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে গোয়াইনঘাট থানার এসআই সমিরন দাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশের প্রাথমিক সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন।
জাফলংয়ে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে ৪ জন দগ্ধ
সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলংয়ে রাতের আঁধারে বসতঘরে দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে ঘুমন্ত অবস্থায় চারজন দগ্ধ হয়েছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে জাফলংয়ের নয়াবস্তির জুমপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অগ্নিদগদ্ধরা হলেন নয়াবস্তি গ্রামের আলতাফ আলীর ছেলে আরফান মিয়া (৪৫), কাজিম উদ্দিনের ছেলে মতিউর রহমান (৩০), শামসুল হকের ছেলে সুজন (২৮), আবদুল মালিকের ছেলে সুহেল আহমদ (২৫)। এদের মধ্যে আরফান মিয়া ও মতিউর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। আহতরা জানান বৃহস্পতিবার রাতে জুম পাড়ে পাথর কোয়ারীর গর্তের পাশের একটি অফিস কক্ষে তারা ঘুমিয়ে ছিলেন। গরমের কারণে অফিস কক্ষের জানালা খোলা রেখেই ঘুমিয়ে পড়েন তারা। গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা জানালা দিয়ে পেট্রোল বা কেরোসিন ছুঁড়ে আগুন ধরিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এস তাদেরকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। গোয়াইনঘাট থানার ওসি (তদন্ত) জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কেউ এ ঘটনা ঘটাতে পারে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ঘটনার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ