রবিবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২০
Online Edition

ইটিভির সাবেক চেয়ারম্যান আবদুস সালামের স্থায়ী জামিন

স্টাফ রিপোর্টার : একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি) সাবেক চেয়ারম্যান আবদুস সালামকে অর্থপাচারের মামলায় স্থায়ী জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। এরআগে জারি করা রুলের নিষ্পত্তি করে গতকাল বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এবং বিচারপতি সহিদুল করিম সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

গত ২১ মার্চ অর্থ পাচার মামলায় ছয় মাসের অন্তবর্তীকালনি জামিনের পাশাপাশি তাকে কেন স্থায়ী জামিন দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি শেখ আবদুল আউয়াল ও বিচারপতি খসরুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ তার জামিন প্রশ্নে এ রুল জারি করেন। এই রুলের চুড়ান্ত নিষ্পত্তি করে গতকাল বুধবার তাকে স্থায়ী জামিন দেয়া হলো। 

২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল অর্থ পাচারের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক সামছুল আলম বাদী হয়ে তেজগাঁও থানায় তার বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মামলার অন্য আসামীরা হলেন-আবদুস সালামের সালামের ভাই আফতাবুল আলম এবং ইটিভির সাবেক জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক ফজলুর রহমান শিকদার। মামলায় আসামীদের বিরুদ্ধে পরস্পরের যোগসাজশে বৈদেশিক মুদ্রা ক্রয়, সংরক্ষণ ও পাচারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়, একুশে টিভির চেয়ারম্যান থাকাকালে আবদুস সালাম প্রতিষ্ঠানের হিসাব থেকে ২৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা তোলেন। পরে সে টাকা দিয়ে ৩০ হাজার ইউরো কিনে সংরক্ষণ ও পাচার করেন।

২০১৫ সালের ৬ জানুয়ারি ভোরে আবদুস সালামকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। পরে ক্যান্টনমেন্ট থানার করা পর্নোগ্রাফি আইনের একটি মামলায় তাকে গ্রেফদার দেখানো হয়।

আবদুস সালাম দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে রয়েছেন। গত বছরের ২০১৫ সালের ৬ জানুয়ারি ভোরে তাকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ। পরে তাকে পর্নোগ্রাফি আইনে দায়ের করা ক্যান্টনমেন্ট থানার একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। এর পর ২০১৫ সালের ৮ জানুয়ারি বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও আবদুস সালামসহ আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে আরেকটি মামলা করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ