ঢাকা, শনিবার 16 October 2021, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

এবারও ফাঁকা মাঠে গোলের অপেক্ষায় পাপন

অনলাইন ডেস্ক: ২০১৩ সালের ১০ অক্টোবরের নির্বাচনে ফাঁকা মাঠে গোল দিয়েছিলেন নাজমুল হাসান পাপন। সামনে বিসিবির নির্বাচন। এবারও পাপনের সামনে ফাঁকা মাঠ। দ্বিতীয়বার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিসিবির প্রেসিডেন্ট হবার অপেক্ষায় সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ছেলে।

বিসিবির বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হবে আগামী ১০ অক্টোবর। গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী এর ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন দিতে হবে। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, তিন মাস নয়, মেয়াদ শেষ হবার এক-দেড় মাসের মধ্যেই নির্বাচন দেওয়ার কথা ভাবছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন।

শুধু তাই নয়, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট হবার রাস্তা পুরোটাই পরিষ্কার করে ফেলেছেন বিচক্ষণ ও সুচতুর পাপন। গত নির্বাচনের কয়েক মাসে বেশ তোড়জোড় শুরু করেছিলেন সাবেক বিসিবি প্রেসিডেন্ট সাবের হোসেন চৌধুরী। বেশ কয়েকবার সংবাদ সম্মেলনও ডেকেছিলেন তিনি। কিন্তু নাজমুল হাসান পাপনের কৌশলের কাছে পেরে ওঠার সম্ভাবনা কম দেখায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান তিনি।

সাবের চৌধুরী এবার পুরোপুরি নিশ্চুপ। বিসিবির নির্বাচন তো দূরের কথা ক্রিকেট নিয়েই তিনি আর কোনো কথা বলতে চান না। পাপনের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে এক সময় শোনা গিয়েছিলে গাজী গোলাম দস্তগীরের নাম। জানা গেছে, তিনিও সমর্থন দিচ্ছেন নাজমুল হাসান পাপনকে।

সাবেক বাংলাদেশ অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের সঙ্গেও বিবাদ মিটিয়ে ফেলেছেন পাপন। ২০১৫ সালে দল নির্বাচন নিয়ে কড়া সমালোচনা করায় পাপনের বিরাগভাজন হন দুর্জয়। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির পদটাও ছাড়তে হয়েছিল এ কারণে। এরপর থেকে ক্রিকেট বোর্ডেই আসা ছেড়ে দিয়েছিলেন দুর্জয়।

তবে পাপন-দুর্জয় এখন কাছাকাছি। নির্বাচনের পর নতুন কমিটি থেকে দুর্জয়কে পরিচালক পদ থেকে বাদ দেওয়ার পরিকল্পনা থেকেও সরে এসেছেন পাপন। তাই দুর্জয় এবারও পরিচালক হচ্ছেন পাপনের প্যানেল থেকেই।

যতদূর জানা গেছে, ঢাকার ক্লাবগুলো, জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, প্লেয়ার্স ও সার্ভিসেস থেকে এখনও কেউ প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করার আগ্রহ প্রকাশ করেননি। যারা ভোটার সেই কাউন্সিলরদের সিংহভাগও সমর্থন করছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট পাপনকে। ফলে দ্বিতীয়বারের মতো বিসিবির ম্যাজিকাল চেয়ারে বসাটা একরকম নিশ্চিতই।

পুরানো পরিচালকদের কে কে বাদ যাবেন, নতুন করে কারা নতুন কমিটিতে ঢুকবেন তারও তালিকা করা হয়ে গেছে। জানা গেছে, বর্তমান কমিটি থেকে তিনজন পরিচালক বাদ পড়তে যাচ্ছেন। বাদ পড়াদের তালিকায় আছেন আহমেদ ইকবাল হাসান, শওকত আজিজ রাসেল ও সাজ্জাদুল আলম ববি। অন্যদিকে, বর্তমান কমিটির অন্যতম পরিচালক নাজমুল হাসান টিংকু মারা যাওয়ায় এখানে নতুন কেউ ঢুকবেন। নতুন পরিচালক হিসেবে নাম শোনা যাচ্ছে ওবায়েদ নিজাম, মোকসেদুর রহমান বাদল এবং তানভীর আহমেদ টিটু।-ঢাকা টাইমস

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ