শনিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

ভৈরব ও রূপসা নদী দখল হয়ে যাচ্ছে বর্জ্যে পানি দূষিত ॥ পরিবেশ বিপর্যয়

খুলনা অফিস : দখল হয়ে যাচ্ছে খুলনা শহর সংলগ্ন ভৈরব ও রূপসা নদী। সেই সাথে ঝুলন্ত পায়খানা ও বিভিন্ন বিষাক্ত বর্জ্য ফেলে  পানি মারাত্মকভাবে দূষিত হচ্ছে। পাশাপাশি খুলনা শহর রক্ষা বাঁধের ওপর অবৈধভাবে দোকান পাট গড়ে ওঠায় বাঁধটির অস্তিত্ব এখন সংকটে পড়েছে। ইতোমধ্যেই বাঁধের একাধিক স্থানে ফাটল ধরেছে। যে কোন মুহূর্তে বড় ধরনের ধস নেমে ব্যাপক ক্ষতির আশংকা করা হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, কোন নিয়ম নীতি না মেনে বাঁধ দখল ও নদী দখলের মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা ঘর  তৈরী করে  শহর রক্ষা বাঁধ হুমকির সম্মুখীন হয়। ইতোমধ্যেই হাসপাতাল ঘাট, কালিবাড়ী, ডেল্টাঘাটসহ ৭/৮টি স্থানে শহর রক্ষা বাঁধের ব্লক ধসে নদী গর্ভে চলে গেছে এবং মূল বাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে।
এদিকে ব্যবসায়ীরা নদী দখল করে তৈরী করেছে দোকান ঘর। তাছাড়া ব্যবসায়ীরা অসংখ্য ঝুলন্ত পায়খানা তৈরী করে নিয়মিত মলমূত্র ত্যাগ করছে। শহরের বিভিন্ন দূষিত বর্জ্য ও পানি নদীতে ফেলা হচ্ছে। এতে নদীর পানি দূষিত হচ্ছে। নদীর উভয় কূল দখলের কারণে নদী দু’টি ক্রমান্বয় সংকুচিত হয়ে আসছে। 
এ ব্যাপারে খুলনা বড় বাজারের একাধিক ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এক  শ্রেণীর প্রভাবশালী ব্যবসায়ীরা বাঁধ দখল ও নদী দখল করে ঘর তৈরী করেছে। ব্লক সরিয়ে ছিদ্র করে ঘর তৈরী করা হয়েছে। তাদের কারণেই শহর রক্ষা বাঁধ এখন ক্ষতির সম্মুখীন।
নদী বিশেষজ্ঞদের মতে-ভৈরব ও রূপসা নদী যেভাবে দখল হচ্ছে এবং মলমূত্র ও বিষাক্ত বর্জ্য ফেলে পানি দূষিত করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ