বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

খালেদা জিয়ার দুই মামলা স্থগিতই থাকছে

 

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা রাজধানীর দারুস সালাম থানার দুই মামলার কার্যক্রম স্থগিতের হাইকোর্টের দেয়া আদেশ চার সপ্তাহের জন্য স্ট্যান্ডওভার (মুলতবি) করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। ফলে এ দুই মামলার কার্যক্রম আপাতত স্থগিতই থাকছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

গতকাল রোববার দুপুরে আপিল বিভাগের চেম্বার জজ বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এ আদেশ দেন। 

আদালতে সরকার পক্ষে শুনানি করেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। অন্যদিকে খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী ও ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

গত ৭ মে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাশকতার (গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ) অভিযোগে দায়ের করা দারুস সালাম থানার দুটি মামলার কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে এসব মামলা আমলে নেয়ার আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। এ নিয়ে খালেদা জিয়ার মোট ৯টি মামলার কার্যক্রম স্থগিত হয় হাইকোর্টে। এরমধ্যে একটি রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা রয়েছে।

বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি এ এন এম বসির উল্লাহ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই স্থগিতাদেশ দেন।

গত ২৯ মার্চ খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলাটি আমলে নেয়ার আদেশ কেন অবৈধ এবং বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করেন সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাবেক সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী।

পরে যাত্রাবাড়ী এলাকায় গাড়িতে আগুন দেয়ার দুটি মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। এসব মামলা আমলে নেয়া কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। গত ১৩ এপ্রিল রাজধানীর বিভিন্ন থানায় গাড়ি পোড়ানো ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে দায়ের করা চার মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে রুল জারি করেন আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ