বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর মিরপুর মডেল থানায় চুরি ও মারামারির অভিযোগে দায়েরকৃত একটি মামলায় ১১ মাসের শিশু এবং মৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়ার অভিযোগে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মারুফুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

একইসঙ্গে আরও দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। তারা হলেন সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) কাজী মাহবুবুল আলম ও ওসি (তদন্ত) মো. সাজ্জাদ হোসেন। এছাড়া মিরপুর জোনের ডিসি এবং এডিসিকে সতর্ক করা হয়েছে।

গতকাল রোববার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) সহেলী ফেরদৌস স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, মিরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাজ্জাদ হোসেনকে প্রত্যাহার করে এপিবিএন মহালছড়িতে সংযুক্ত করা হয়েছে। অপরদিকে মিরপুর জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) কাজী মাহবুবুল আলমকে বর্তমান কর্মস্থল থেকে প্রত্যাহারপূর্বক ইনসার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে বদলি করা হচ্ছে। এ তিন পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু হচ্ছে।

মিরপুর জোনের ডিসি এবং এডিসিকে সর্তক করা হয়েছে। তাদেরকে পেশাদারিত্ব ও নিষ্ঠার সাথে নিবিড়ভাবে মামলা তদারকের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এ কে এম শহীদুল হক এ নির্দেশ প্রদান করেছেন।

এর আগে গত ৩০ এপ্রিল ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক খুরশীদ আলম গত ৯ মে এ কর্মকর্তাকে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলেছিলেন। কিন্তু তিনি অসুস্থ হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জিআরও আদালতকে অবহিত করলে আদালত আগামী ১৬ মে সশরীরে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এর দু’দিন আগেই গতকাল আইজিপি সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ