বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

রাজশাহীর আদালতে জঙ্গি সুমাইয়া ॥ ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

রাজশাহী অফিস : রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার বেনীপুরের জঙ্গি আস্তানা থেকে আত্মসমর্পণ করা জঙ্গি সুমাইয়া খাতুনকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সুমাইয়াকে আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছিল। আদালত তার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানান, সুমাইয়াকে রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এ হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোদাগাড়ী থানার পরিদর্শক আলতাফ হোসেন তার ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। তবে আদালতের বিচারক সাইফুল ইসলাম তার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুমাইয়াকে নিয়ে যান। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরুর পর সুমাইয়ার বাবা, মা, ভাই, বোন ও বহিরাগত এক জঙ্গি আত্মঘাতি বোমার বিস্ফোরণে নিহত হয়। এরপর দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে সুমাইয়া আত্মসমর্পণ করেন। সুমাইয়ার ৮ বছরের ছেলে জুবায়েরকে তার চাচার জিম্মায় দেয়া হয়েছে। তবে তিন মাসের মেয়ে আফিয়া সুমাইয়ার সঙ্গেই থাকবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় গত শনিবার ৮ জঙ্গির নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ২০/২৫ জনকে আসামী করে থানায় মামলা করে পুলিশ। এরপরই এ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জঙ্গি সুমাইয়াকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে তোলা হয়। গতকাল আদালতে হাজিরার সময় পুলিশের একজন নারী সদস্য সুমাইয়ার শিশু কন্যাকেও আদালতে নিয়ে আসেন।

বাঘায় অস্ত্রসহ এক ব্যবসায়ী আটক

বাঘা (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রিভলবার, দুটি ম্যাগজিন ও ছয় রাউন্ড গুলীসহ জিয়ারুল ইসলাম কালু নামের এক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। সে উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের মৃত আবদুল খালেকের ছেলে। 

র‌্যাব-৫ এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অস্ত্র বেচাকেনার গোপন সংবাদের ভিক্তিতে রোববার ভোররাতে র‌্যাব-৫ এর কোম্পানি কমান্ডার এএম আশরাফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গোকুলপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কালু অস্ত্র ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে বলে স্বীকার করেছে। বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলী মাহমুদ অস্ত্রসহ কালুকে আটকের খবরটি নিশ্চিত করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ