রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

শালিখার কালবৈশাখী ঝড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ফসলে ব্যাপক ক্ষতি

শালিখা (মাগুরা) সংবাদদাতা: গত কয়েকদিনের কালবৈশাখী ঝড়ে শালিখার কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রন্থ্য ও লণ্ড ভণ্ড হয়েছে। গত সপ্তাহের প্রথম ঝড়ে উপজেলা সদরে মুন্সী শহিদুর রহমান বিএম কলেজ একটি ঘরের সম্পূর্ন টিনের ছাউনি উড়ে যায়।
এরপর দ্বিতীয় ঝড়ে সেওজগাতী আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের একটি ঘরের দেওয়ালে প্রায় ১০ ফুট ফাটল দেখা দিয়েছে। সর্বশেষ গত ২৭ এপ্রিলের  কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ড ভণ্ড করে দিয়েছে মাগুরার শালিখা উপজেলার বুনাগাতী আমজাদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বুনাগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রামপুর গ্রামের অবস্থিত মাগুরা কৃষি ইনিষ্টিটিউট। প্রতিষ্ঠান গুলো সংস্কার না করলে পাঠদান করা খুবই কষ্ট কর।
অন্য দিকে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কয়েকটি কয়েকটি মাটির ঘর সহ অসংখ্য গাছপালার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অন্য দিকে কয়েক দিন ধরে প্রচুর বৃষ্টি হওয়ায় উপজেলার বিল ও নিম্ন এলাকায় পাকা ধান পানিতে পড়ে যাওয়ায় ফসলেও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। যার ফলে উপজেলায় দেখা দিয়েছে প্রচণ্ড শ্রমিকের অভাব। গত ২৯ এপ্রিল আড়পাড়া শ্রম বাজারে গিয়ে দেখা যায় শ্রমিকের চেয়ে শ্রম ক্রেতার সংখ্যা বেশি। ফলে শ্রমিকরা লুফে নিচ্ছে মোটা অংকের মুজুরী। প্রতিদিন ৭-৮শ টাকা দরে শ্রমিক বিক্রি হচ্ছে। এ ব্যাপারে কুমারকোটা গ্রামের কৃষক শিহাব উদ্দিন এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, শ্রম কিনতে গিয়ে চরম হিমশিম খেতে হয়েছে। অনেক দরাদরি পর ৭শ টাকা দরে ৫ জন শ্রমিক ক্রয় করেছি। তাদেরকে তিন বেলা খেতে দিতে হবে। তিনি আরো বলেন বাড়িতে বিদ্যুৎ, মশারি ও থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা সন্তোষজনক হতে হবে বলে শ্রমিকরা দাবী করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ