সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সমাবেশে সংঘর্ষ

চট্টগ্রাম অফিস : দুই গ্রুপে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সমাবেশ শেষ হয়েছে। গতকাল বুধবার পটিয়া উপজেলা সদরের হল টুডে কমিউনিটি সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছে। ভাঙচুর হয়েছে ২৫টি গাড়ি। সমাবেশস্থলে দলের কেন্দ্রীয় কোন নেতা যোগ দিতে পারেনি।
দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য গাজী মো. শাহজাহান জুয়েল ও সহ-সভাপতি ও পটিয়া বিএনপি নেতা এনামুল হক এনামের অনুসারীদের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়।
আহতদের মধ্যে কয়েকজন নাম জানা গেছে তারা হলেন- দক্ষিণ জেলা সহ সভাপতি ও দলের দক্ষিণ জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এনামুল হক এনাম, মো: আলী আব্বাস, সাদেক, মাহফুজ, মো. সেকান্দর মো. সাইফুল ইসলাম, মনসুর, জিয়াউদ্দিন বাবু,  বাহাদুর, মো. আলমগীর, মো. সাজ্জাদ, মো. জমীর উদ্দিন, মো. রাশেদ, মো. কাইয়ুম প্রমুখ।
জানা গেছে, বুধবার বেলা দুইটার দিকে সমাবেশেস্থলে যোগ দিতে গেলে দক্ষিণ জেলা বিএনপি নেতা এনামুল হক এনামের মিছিলে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ জুয়েল গ্রুপ। এসময় ধাওয়া এবং ব্যাপক পিটুনী দিয়ে সভাস্থল থেকে বিতাড়িত করা হয় এনাম গ্রুপের নেতা কর্মীদের। হামলায় জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও পটিয়া বিএনপি নেতা এনামসহ অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।
প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, পটিয়া সদরে হল টুডে কমিউনিটি সেন্টারে সমাবেশ শুরু হওয়ার আগে বেলা দুটার দিকে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ সভাপতি এনামুল হক এনামের নেতৃত্বে শতাধিক নেতাকর্মী সমাবেশন্থলে মিছিল নিয়ে পৌঁছলে সাবেক এমপি ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান জুয়েল গ্রুপের সমর্থকরা তাদের দিকে চেয়ার ছুঁড়ে মারে। এসময় দুপক্ষের মধ্যে চেয়ার মারামারি শুরু হয়। এক পর্যায়ে জুয়েল গ্রুপের সমর্থকরা ধাওয়া দিয়ে এনাম গ্রুপের সমর্থকদের এলাকা ছাড়া করে। এসময় এনাম গ্রুপের সমর্থকরা চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়কে অবস্থান নিয়ে অন্তত ২০ থেকে ২৫টি যানবাহন ভাঙচুর করে।
বাইরে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার হলেও হলের ভেতরে শাহজাহান জুয়েল গ্রুপের নেতাকর্মীরা সমাবেশ করেছে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেনের উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তিনি সমাবেশস্থলে পৌঁছাতে পারেনি। এছাড়া এম মোরশেদ খান, মাহবুবুর রহমান শামীমসহ অন্যান্য নেতারা সমাবেশে যোগদান করতে পারেনি।
বিএনপির বিভাগয়ি সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামিম বলেন, এনামের অনুসারিরা রাস্তায় ব্যারিকেড সৃষ্টি করায় আমি সমাবেশে যোগ দিতে পারিনি। সেখানে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে বলে শুনেছি।
কেন্দ্রীয় নেতারা সমাবেশে যোগ না দেয়ায় শাহজাহান জুয়েলের সভাপতিতে অনুষ্ঠিত সভা বিকাল ৫টার দিকে শেষ হয়ে যায়। তার অনুসারি সল্প সংখ্যক নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
পটিয়া থানার ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম জানান, বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এক গ্রুপ অন্য গ্রুপের উপর হামলা চালায়। সমাবেশ থেকে বিতাড়িত হয়ে এক গ্রুপ গাড়ি ভাঙচুর করে পালিয়ে যায়। আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছি। গাড়ি ভাঙচুরকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ, মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির সমাবেশে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নাসিমন ভবনে অনুষ্ঠিত সমাবেশ পন্ড হয়ে যায়। আহত হয় বেশ কয়েকজন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ