ঢাকা, মঙ্গলবার 22 September 2020, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ৪ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ভারতে মুসলিম হয়রানি বন্ধ করতে বললেন আজম খান

অনলাইন ডেস্ক: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদ্দেশে বিজেপিশাসিত উত্তর প্রদেশের সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খান বলেছেন, ‘মুসলিমদের হয়রানি বন্ধ না হলে ফল ভোগ করার জন্য তৈরি থাকুন।’ আজ (মঙ্গলবার) গণমাধ্যমে প্রকাশ, আজম খান রামপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সংক্রান্ত মন্তব্য করেছেন।

উত্তর প্রদেশের সাবেক মন্ত্রী মুহাম্মদ আজম খান আরও বলেন, দেশের মুসলিমদের জন্য সমস্যা সৃষ্টি করা হচ্ছে। যদি মুসলিম সম্প্রদায় জাতিসংঘের দ্বারস্থ হয় তাহলে তার পরিণাম ভোগ করার জন্য প্রস্তুত থাকা উচিত।

তিনি বলেন, ‘ভারতে মুসলিমদের উৎপীড়ন করা হচ্ছে এবং যদি সম্প্রদায়ের মানুষজন জাতিসংঘের দ্বারস্থ হয়ে তাদের কষ্টের কথা প্রকাশ করে তাহলে মোদি কোথাও নিজের মুখ দেখাতে পারবেন না। এসব বন্ধ করুন অন্যথায় ফল ভোগ করার জন্য তৈরি থাকুন।’  

আজম খান বলেন, ‘মুসলিমরা পবিত্র কুরআনের অনুসরণ করে এবং তারা শেষ নিঃশ্বাস চলা পর্যন্ত তা পালন করতে থাকবে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী ইসলাম সম্পর্কে জানেন না এবং হিন্দুত্ব সম্পর্কেও জানেন না।’   

আজম খান উত্তর প্রদেশের বিজেপি নেতা ও মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সম্পর্কে মন্তব্য করে বলেন, তার কথা এবং কাজকর্মের মধ্যে বিস্তর ব্যবধান রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী অবৈধ জমি আধিগ্রহণের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার কথা বললেও তার মন্ত্রিসভার এক সদস্য নিজ বাসায় কোটি টাকারও বেশি মূল্যের অবৈধ নির্মাণ করলেও কোনো পদক্ষেপ নেননি।

অন্যদিকে, তান্ডাতে এক জনসভায় তিন তালাক ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতিকে কটাক্ষ করে আজম খান বলেন, ‘যে ব্যক্তি সাত পাঁক দেয়ার পরেও নিজে পতিধর্ম পালন করতে পারেন না তিনি অন্যের স্ত্রী সম্পর্কে কী ভাববেন। মোদি আগে নিজের স্ত্রীকে তো অধিকার দিন।’

তিনি বলেন, তিন তালাক ইস্যুতে স্রেফ শরীয়াহ আইন মানা হবে। মুসলিম নারী কর্তৃক তিন তালাকের বিরোধিতা প্রসঙ্গে আজম খান বলেন, ‘বিজেপি’র এটা আজব তামাশা। ভুয়া মুসলিম নারীদের বোরকা পরিয়ে তিন তালাকের বিরোধিতায় দাঁড় করানো হচ্ছে।’

হিন্দু এবং মুসলিমদের মধ্যে লড়াই বাঁধানো এসব লোকেরা এখন মুসলিমদের নিজেদের মধ্যে লড়াই বাঁধাতে চাচ্ছে বলেও আজম খান মন্তব্য করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ