শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

সৌদি আরবে ৭ হাজার কর্মসংস্থান তৈরী করবে সৌরশক্তি প্রকল্প

২৭ এপ্রিল, আরটি : তেলনির্ভর অর্থনীতি থেকে দিনে দিনে বেড়িয়ে আসছে সৌদি আরব। দেশটি আশা করছে তাদের নতুন সৌরশক্তি প্রকল্পে ২০২০ সালের মধ্যে আরও ৭ হাজার কর্মসংস্থান বাড়বে। মূলত প্রকল্প নির্ভর স্থানীয় কারখানাগুলোতে এই কর্মসংস্থান তৈরী হবে।

সৌদি আরবের শক্তি ও প্রাকৃতিক সম্পদমন্ত্রী আগামী ৩ বছরের মধ্যে সৌর এবং বাতাস থেকে ৩.৪৫ গিগাওয়াট শক্তি উৎপন্ন করতে চাইছেন। এজন্য স্থানীয় কর্মশক্তি ও কোম্পানিখাতে যে পরিমান বিনিয়োগ করার কথা তার ৩০ শতাংশই ব্যায় করা হবে সৌরশক্তি প্রকল্পে। দেশটির বেড়ে চলা জনসংখ্যার বিদ্যুৎ চাহিদা মেটাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এই প্রকল্প।

সৌদি আরব চায় দেশের আয় বাড়াতে তেল রপ্তানির চক্র থেকে বেরিয়ে আসতে। দেশটির নবায়ণযোগ্য প্রকল্প ব্যবস্থাপনা অফিসের প্রধান তুর্কি আল শেহরি ব্লুমবার্গ পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন, ‘আমরা তেলের বিকল্প শক্তির অনুসন্ধান করছি, কারণ নবায়ণযোগ্য শক্তি দিনে দিনেই সহজলভ্য হয়ে উঠছে।’

আইইএ’র তথ্যমতে, সৌদি আরবে গ্রীষ্মকালে শুধুমাত্র এয়ারকন্ডিশন এবং বাতি জ্বালিয়ে রাখতেই প্রতিদিন গড়ে ৯ লাখ ব্যারেল তেল পুড়ানো হয়। দেশটির মন্ত্রীপরিষদ সদস্যরা অনেক আগেই তেলের বিকল্প শক্তি চালু করার উপায় নিয়ে আলোচনা শুরু করেছিলেন। তাই সরকারী উদ্যোগে জমি এবং গ্রিড সংযোগ দেওয়ার পর ডেভেলপার কোম্পানীগুলো পাওয়ার প্লান্ট তৈরী করছে।

সৌদি আরবের ‘ভিশন-২০৩০’ বাস্তবায়ন করলে দেশটি অনেকাংশেই জীবাশ্ম জ্বালানী নির্ভর অর্থনীতি থেকে তারা বেড়িয়ে আসবে। এ লক্ষ্যে তারা স্থানীয় কারখানাগুলোতে উৎপাদন বাড়িয়ে পণ্য রপ্তানী বাড়াতে চায়। শুধু তাই নয় সৌরশক্তি প্রকল্পের মাধ্যমে তারা নতুন ব্যাংকিং সিস্টেম চালু, পর্যটন খাতের উন্নয়ন এবং উৎপাদন বাড়াতে চায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ