শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

শ্রীলংকাকে হারিয়ে বাংলাদেশের শুভসূচনা

স্পোর্টস রিপোর্টার : ত্রিদেশীয় ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জড টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের শুভসূচনা করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। গতকাল প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকাকে ১৭১ রানের বিশাল ব্যবধানের হারিয়ে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ দল। জগন্নাথ হল মাঠে আগে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২১৮ রান করে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৪৮ রানে অল আউট হয় শ্রীলংকা। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন শাহরিয়ার শামীম। এ ছাড়া সুজন দেবনাথ করেন ৫৬ রান। মূলত এই দুই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ভর করে বড় পুঁজি পায় বাংলাদেশ। ৩৫ বলে ১১ চার ও ৪ ছক্কায় ৭৮ রানের ইনিংসটি সাজান উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান শামীম। সুজন দেবনাথ ৪০ বলে ৫৪ রানের ইনিংসটি সাজান ৬টি চার ও ১টি ছক্কায়। বল হাতে শ্রীলংকার হয়ে ২টি করে উইকেট নেন সুরাঙ্গা ও দিনেশ। পাহাড় সমান লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় শ্রীলংকা। স্বাগতিক বোলারদের বোলিংয়ে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি শ্রীলংকার ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশের আমিন উদ্দিন ২২ রানে নেন ২ উইকেট। ম্যাচসেরা হয়েছেন শাহরিয়ার শামীম। পুরস্কার হিসেবে তার হাতে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন ব্র্যান্ডের একটি স্মার্টফোন তুলে দেন প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম। বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলংকাকে নিয়ে গতকাল থেকে শুরু হয়েছে ‘ত্রিদেশীয় ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জড টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট।’
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল মাঠে একক লিগ পদ্ধতিতে হবে ম্যাচগুলো। ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে ওয়ালটন গ্রুপ। এই আয়োজনের প্লাটিনিয়াম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল সকালে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিন দেশের জাতীয় সংগীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে ওয়ালটন গ্রুপ। টুর্নামেন্টটি আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জড (বিসিএপিসি)।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ডিজঅ্যাবল টিমের ম্যানেজার খন্দকার মঈন উদ্দিন দেশ নিয়ে তাদের স্বপ্নের কথা জানান। তিনি বলেন, আমাদের খুব ভালো টিম রয়েছে। আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে পারবো। আন্তর্জাতিক ভাবে আমরা আমাদের দেশের সম্মান বাড়াবো।’ সবাই যেনো তাদের সমর্থন দেন সেই আহ্বান জানান মঈন উদ্দিন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার বলেন, যারা শারীরিকভাবে অক্ষম তারা দেশের বোঝা নয়, দেশের সম্পদ। তাদের কে বিভিন্নভাবে আমাদের মূলস্রোতে নিয়ে আসতে হবে। তারা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশের সম্পদে পরিণত হচ্ছে। তিনি এই টুর্নামেন্টের সফলতা কামনা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ