মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

২ সন্তান নিয়ে বিপাকে অসহায় মা

লালমনিরহাট সংবাদদাতা : সংসারের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব কে নিবে? এই হতাশা এখন চোখে মুখে! লালমনিরহাটের হারাটি ইউনিয়নের কাজীর চওড়া গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিক এর মেয়ে, ২ সন্তানের জননী মোছাঃ ছিদ্দিকা বেগম ওরফে মিষ্টি (৩২) স্বামীর দাবীকৃত যৌতুকের টাকা না দেয়ায় দীর্ঘদিন ধরে তার উপর নেমে আসে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। অবশেষে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে লম্পট স্বামী মাইদুল ইসলাম (৩৬)। জানা গেছে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার সিংগার ডাবরীর পশ্চিম দেবতর গ্রামের মৃত্যুঃ কলিম উদ্দিনের ছেলে মোঃ মাইদুল ইসলামের সাথে গত ২৬ জানুয়ারী ২০০৬ইং সালে লালমনিরহাট সদর উপজেলার হারাটী ইউনিয়নের কাজীর চওড়া গ্রামের মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক এর মেয়ে মোছাঃ ছিদ্দিকা বেগম মিষ্টির সাথে বিনা যৌতুকে বিয়ে হয়েছিল। কিছু দিন পর ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করেন স্বামী মাইদুল ইসলাম। দাবীকৃত টাকার মধ্যে ওই সময় মেয়ের সুখের সংসারের লক্ষ্যে নগদ ৫০ হাজার টাকা দেয় মিষ্টির বাবা।
আবার কিছু দিন যেতে না যেতেই আরো ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। ওই টাকা না দেয়ায় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন নেমে আসে মিষ্টির উপর। নিরুপায় হয়ে মেয়ে সাবিকুন নাহার মিম (১০) ও আব্দুল্লাহ আল মেরাজ (৫) কে নিয়ে বর্তমানে দরিদ্র পিতার বাড়ীতে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে কোন সুফল মেলেনি।
সিদ্দিকা বেগম সাংবাদিকদের জানান লম্পট মাইদুল পরকিয়া প্রেমে লিপ্ত, সে প্রেমে বাধা দেয়ায় এমন নির্যাতন নেমে আসে।
মাইদুল আদিতমারী উপজেলার দূর্গাপুর এলাকার জনৈক ব্যক্তির কলেজ পড়–য়া মেয়ের সাথে পরকিয়া প্রেমে লিপ্ত রয়েছেন বলে জানা যায়। এ ব্যাপারে আদালতে সংশ্লিষ্ট ধারামতে মামলা দায়ের করেছে সিদ্দিকা বেগম মিষ্টি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ