সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শুভেচ্ছা দূত হাবিবুল বাশার সুমন

স্পোর্টস রিপোর্টার : ২০০৬ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ খেলেছিল হাবিবুল বাশার সুমনের নেতৃত্বে। ১১ বছর পর আবার যখন এই টুর্নামেন্ট খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ, এবারও দলে  থাকছেন তিনিও। নির্বাচক হিসেবে শুধু বাংলাদেশ দল গঠন করেই নয়, হাবিবুল সরাসরিই থাকছেন আরেকটি পরিচয়ে। সাবেক বাংলাদেশ অধিনায়ক মনোনীত হয়েছেন আইসিস চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ৫০ দিন আগে শুভেচ্ছা দূতদের নাম প্রকাশ করেছে আইসিসি। আটজনের তারকাখচিত এ দলে হাবিবুলের সঙ্গী অস্ট্রেলিয়ার মাইক হাসি, ভারতের হরভজন সিং, দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রায়েম স্মিথ, নিউজিল্যান্ডের শেন বন্ড, শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা, ইংল্যান্ডের ইয়ান বেল ও পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদি। শুভেচ্ছা দূতরা সবাই মিলে খেলেছেন এক হাজার ৭৭৪ ওয়ানডে, করেছেন প্রায় ৫২ হাজার রান, সেঞ্চুরি ৪৮টি, উইকেটে ৮৩৮টি। বাংলাদেশের হয়ে হাবিবুল খেলেছেন ১১১টি ওয়ানডে। নেতৃত্ব দিয়েছেন দেশের রেকর্ড ৬৯ ম্যাচে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলেছেন তিন আসরে ২০০০, ২০০২ ও ২০০৬ সালে। শেষবার দিয়েছেন দলের নেতৃত্ব। আইসিসি কতৃক মনোনীত হওয়ায়র পর প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায়  হাবিবুল বললেন, শুভেচ্ছা দূতের সম্মান তার জীবনের অন্যতম বড় প্রাপ্তি। অনেক বড় ব্যাপার এটা। আমার জন্য অনেক বড় সম্মান। দেশের জন্যও সম্মান। খেলা শুরু করার পর এত বড় সম্মান মনে হয় পাইনি। আশা করি, টুর্নামেন্ট জমজমাট হবে। আমাদের দলও ভালো করবে। শুভেচ্ছাদূত হিসেবে ইভেনেটর বিভিন্ন প্রচারণামূলক কাজে অংশ নেবেন হাবিবুলরা। পাশাপাশি কলাম লিখবেন আইসিসির ওয়েবসাইটের জন্য।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ