ঢাকা, শনিবার 8 August 2020, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

রামেকে শিবির কর্মীদের উপর ছাত্রলীগের হামলা, ৪ জনকে পুলিশে শোপর্দ

অনলাইন ডেস্ক: রাজশাহী মেডিকেল কলেজে (রামেক) বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে ছাত্রলীগ ও ছাত্র শিবিরের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এ সময় ছাতলীগ কর্মীরা ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে ক্যাম্পাসে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি করে। পরে পুলিশ দুটি ছাত্রাবাসে অভিযান চালিয়ে রামেক শাখা শিবিরের সভাপতিসহ চার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে।

জানা গেছে, শহীদ জামিল আখতার রতন হোস্টেলে রাত সাড়ে ১১টার দিকে এমবিবিএস ৫২তম ব্যাচের র‌্যাগ ডে উদযাপন নিয়ে মেডিকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম অপুর সঙ্গে শিবির নেতা রাকিবের তর্কবিতর্ক হয়।এ নিয়ে উভয় সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। 

এ সময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সংগঠিত হয়ে ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা চালায় এবং আতঙ্ক সৃষ্টির উদ্দেশ্যে চার রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ ছুটে আসেন ক্যাম্পাসে।  ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা এ সময় ছাত্রশিবির রামেক শাখার সভাপতি হেলাল উদ্দিন ও রেটিনা কোচিং সেন্টারের ব্যবস্থাপক ছাত্রশিবির নেতা আরিফুল ইসলাম রাহাত, শিবিরের সাথী তৃতীয়বর্ষের গোলাম রাব্বী এবং কর্মী একই বর্ষের মিজানুর রহমানকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করে।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) অতিরিক্ত উপকমিশনার ইবনে মিজান গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, রাত দুইটার পর থেকে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত শিবির নেতাকর্মীদের জিঞ্জাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে শহীদ জামিল আখতার রতন হোস্টেল থেকে ছাত্রশিবির নেতাকর্মীরা চলে যাওয়ার পর গুলিবর্ষণের বিষয়টি স্পর্শকাতর। গুলিবর্ষণের সঙ্গে জড়িতদের পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ