ঢাকা, বুধবার 23 September 2020, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ৫ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ভারতে ইভিএমে কারচুপি: রাজ্যসভায় সোচ্চার বিরোধীরা

অনলাইন ডেস্ক : ভারতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ তুলে গতকাল বুধবার সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় বিরোধীরা সোচ্চার হওয়ায় সংসদের অধিবেশন মুলতুবি করতে হয়। সংসদে ওই ঘটনায় তীব্র গোলযোগের ফলে ডেপুটি চেয়ারম্যান পি জে ক্যুরিয়েন সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত সংসদসের কাজ মুলতুবি করে দেন।

বুধবার সংসদে বিএসপি প্রধান মায়াবতীর মন্তব্যে সংসদে গোলযোগ সৃষ্টি হয়। বিরোধীরা এসময় ‘ইভিএমের এই সরকার, চলবে না চলবে না’ বলে স্লোগান দেন। কংগ্রেসের মহাসচিব দিগ্বিজয় সিং আজ সংসদে ইভিএম ইস্যু তুলে ধরেন। এরপরে বিএসপি নেত্রী মায়াবতী সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ করেন। মায়াবতী বলেন, তার দল এই ইস্যুতে আদালতেও যাবে। এসময়   মায়াবতী সরকারপক্ষকে উদ্দেশ্য করে তাদের ‘বেঈমান’ বলে অভিহিত করলে সংসদে  তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এ সময় সরকার এবং বিরোধীপক্ষের মধ্যে তুমুল বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

বিজেপি’র পক্ষ থেকে বলা হয় আপনাদের যদি কোনো অভিযোগ থাকে আপনারা নির্বাচন কমিশনের কাছে যান, সংসদের মূল্যবান সময় নষ্ট করবেন না।

রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা গুলামনবী আজাদ ইভিএমের ব্যবহার দ্রুত বন্ধ করে দেয়ার দাবি জানান। দিল্লিতে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন এবং গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনসহ অন্যরাজ্যে ইভিএম ব্যবহার করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন। 

বিরোধীদের অভিযোগের বিরুদ্ধে সাফাই দিয়ে বিজেপি নেতা ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নাকভি বলেন, ‘বিরোধীরা বিহার এবং দিল্লিতে জিতেছিলেন তখন ইভিএম ভালো ছিল আর এখন তা খারাপ হয়ে গেল? বিরোধীদের উচিত পরাজয় মেনে নেয়া। বিরোধীরা তা না করে জনাদেশকে অপমান করছেন।’

সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে উত্তর প্রদেশে বিরোধীদের বিপুলভাবে পরাজিত করে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিএসপি নেত্রী মায়াবতী সংবাদ সম্মেলন করে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ তুলে পুনরায় ব্যালট পেপারে ভোট নেয়ার দাবি জানান। অন্যদিকে, পাঞ্জাবে পরাজিত হওয়ার পরে আম আদমি পার্টির পক্ষ থেকে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ তোলা হয়। জাতীয় নির্বাচন কমিশন অবশ্য আগেই ইভিএমে কারচুপি নিয়ে যাবতীয় অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ