শুক্রবার ২৯ মে ২০২০
Online Edition

সরকার আগামী নির্বাচনও নিজেদের প্রণীত নকশা অনুযায়ী করে নিতে চায় -জোনায়েদ সাকি

খুলনা অফিস: ‘মুক্তিযুদ্ধের আকাক্সক্ষা ও বাংলাদেশে গণতন্ত্রের লড়াই’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, সরকার গায়ের জোরে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলে রেখে একের পর এক জনস্বার্থ বিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করছে। ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারীর একতরফা নির্বাচন মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে। শতকরা ৫ ভাগ মানুষও সে নির্বাচনে ভোট দিতে যায়নি। সংবিধান রক্ষার অজুহাতে সরকার মেরুদ-হীন, বশংবদ নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে নির্বাচনের আয়োজন করেছিল। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি বলে জনগণের কাছে কোন ব্যাপারে জবাবদিহিতারও প্রয়োজন বোধ করে না এ সরকার। পুলিশবাহিনীকে পেটোয়াবাহিনীর মতো ব্যবহার করে নজিরবিহীন দলীয়করণের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় প্রশাসনকে দলীয় প্রশাসনে পরিণত করে, সীমাহীন দুর্নীতি ও লুটপাটের মাধ্যমে অঢেল সম্পদের মালিক হয়ে, সুবিধাভোগী কতিপয় চাটুকার পরিবেষ্টিত হয়ে এবং জাতীয় স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে প্রভাবশালী বিদেশীদের সমর্থন আদায় করে সরকার আগামী নির্বাচনও নিজেদের প্রণীত নকশা অনুযায়ী করে নিতে চায়। সভায় আলোচকগণ বলেন, ঐক্যবদ্ধ গণ-আন্দোলনই একমাত্র পথ, জনগণের অধিকারের জন্য গণ-আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আসুন সে আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করি এবং জনস্বার্থ বিরোধী সব চক্রান্ত প্রতিরোধ করি, জনগণের নিজস্ব রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তুলি-এ আহ্বান জানান।
গণসংহতি আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে শুক্রবার সকাল ১১টায় নগরীর বি এম এ ভবন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহবান জানান।
সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আহ্বায়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল এবং সঞ্চালনা করেন জেলা সদস্য মো. আলামীন শেখ। সভায় বিশেষ আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আল জাহিদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন-বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা খুলনার সমন্বয়ক মনিরুল হক বাচ্চু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ খুলনা শহর কমিটির সম্পাদক মোস্তফা খালিদ খসরু। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন-জেলা সদস্য নূর ইসলাম, কৃষ্ণ সরকার, আম্মার সরদার সৌরভ, আজহারুল ইসলাম, রেহানুজ্জামান বাঁধন প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ