শুক্রবার ২৯ মে ২০২০
Online Edition

অসুস্থ বাবাকে বাঁচাতে ৪ কন্যা সন্তানের আকুতি

গত ৫ মাস আগেও তিনি নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ঘুরে বেকারি পণ্য বিক্রি করেছেন। উপার্জনের টাকায় চার কণ্যা সন্তান, বৃদ্ধ মা-বাবা ও স্ত্রীকে নিয়ে ভালই কাটছিল সংসার।  ৪ মেয়ের পড়া-লেখা, বৃদ্ধ মা-বাবার ওষুধপত্র কেনা সব কিছুই তার আয়ের চাকায় ঘুরতো। এ উদ্যমী মানুষটির হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় চলাফেরা, কর্মক্ষমতা। ভয়ংকর রোগ লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত হয়ে গত ৫ মাস ধরে শুয়ে আছে হাসপাতালের বেড়ে। এরআগে ২০১৬ সালের ৩ সেপ্টেম্বর ব্রেন স্ট্রোক করেন তিনি। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে মোহাম্মদ আলী (৪৮) চার মেয়ে, স্ত্রী ও বৃদ্ধ মা-বাবার কথা ভেবে সারাক্ষণ কাঁদছে। তার সংসার চলছেনা, চলছে না তার চিকিৎসাও। বন্ধ হয়ে গেছে তার সন্তানদের লেখা-পড়া। তিনি এখন অসহায়। চাই একটু ভালবাসা, সহমর্মিতা ও সহানোবতি। আমার আপনার ছোট ছোট সহযোগিতা ও ভালবাসায় একটি সুন্দর সংসারে আবারও ফুটতে পারে হাসি।
মিরসরাই উপজেলার আমান টোল বিশ্ব দরবার এলাকার মুকবুল আহাম্মদ সেরাং বাড়ির ফজল হকের পুত্র মোহাম্মদ আলী (৪৮) দীর্ঘ ৫ মাস ধরে লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত। তার জীবনে সঞ্চয় করা যা ছিল চিকিৎসার পেছনে সব টাকা শেষ গত ৩ মাস আগে। আত্মীয় স্বজনদের সহযোগিতা ও ঋণ করে চলছে তার চিকিৎসা। পরিবারে স্ত্রী,সন্তান, মা-বাবা খেয়ে-না খেয়ে দিন কাটছে। হাসপাতালের বেডে শুয়ে মোহাম্মদ আলী পথ দেখছেনা কোন কিছুর। ক্ষুধাত্ব সন্তানের কান্নায় অস্থির হয়ে উঠছে পিতার বুক। টাকার অভাবে পর্যাপ্ত চিকিৎসাও তার এখন বন্ধ।
চিকিৎসকরা বলছে, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে দেশের বাইরে নিতে হবে। এজন্য প্রয়োজন প্রচুর টাকা। আমি আপনি এগিয়ে এলে বাঁচবে চারটি কন্যাসন্তানের একজন বাবা, দু’জন বৃদ্ধ মা-বাবার শেষ সম্বল নয়নের তারা।
সমাজের উচ্চ, মধ্যবিত্ত ও সব শ্রেণীর মানুষের কাছে তাকে বাঁচাতে সাহয্যে চেয়েছেন তার স্ত্রী পারভীন আক্তার।
সাহায্যে পাঠানোর ঠিকানা-মোহাম্মদ আলী, শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক আগ্রাবাদ শাখা, হিসাব নম্বর-৩০০১১২১০০০৩০৩০৩১৫। চাইলে সাহায্যে পাঠাতে পারেন মোবাইলে। বিকাশ নম্বর-০১৮১৯৪৭৮৭৬৮। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ