মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সীতাকুণ্ড পাহাড়ে ২ সন্তানের জননীকে কুপিয়ে হত্যা

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : সীতাকুণ্ডে শারমিন আক্তার (৪০) নামে দুই সন্তানের জননীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মহিলার শরীরে বেশ কিছু দা'য়ের কোপের দাগ রয়েছে।  ৩০ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার সময় সীতাকুণ্ড মডেল থানার পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করেন। শারমিন আক্তার কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ থানার মৃত আবদুর রহমানের কন্যা ও ইসমাইল হোসেন তরুণের স্ত্রী। সে দীর্ঘ চৌদ্দ বছর ধরে উপজেলার কুমিরা উত্তর রেলওয়ে কলোনিতে বসবাস করতো দুই সন্তানকে নিয়ে। জানা যায়, উপজেলার কুমিরা উত্তর রেলওয়ে কলোনিতে দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে এক কন্যা ও এক পুত্র সন্তান নিয়ে বসবাস করতো স্বামীহারা শারমিন আক্তার। বসবাসকালে পাহাড়ের কাঠ কেটে ও জুম চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করতো সে। বুধবার দুপুরে প্রতিদিনের ন্যায় পাহাড়ে যাওয়ার সময় মেয়ে জেসমিনকে বলে যায় আমি পাহাড়ে যাচ্ছি  বলে ঘর থেকে বেরিয়ে আর ফিরে আসেনি। রাতভর অনেক খোঁজাখুঁজির পর বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় সাহাব উদ্দিনের মালিকানাধীন বাগানে শারমিনের লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা এলাকার মেম্বারকে বিষয়টি জানায়। মেম্বার আলাউদ্দিন বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরন করেন।
সীতাকুণ্ড থানার উপ-পরিদর্শক মো.ফারুক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘আমরা ঘটনাস্থলে এসে মহিলার লাশটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছি,মহিলার শরীরের বিভিন্ন অংশে দা‘র কোপের দাগ রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ