শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

তামিমের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের ৩২৪ রানের বিশাল স্কোর

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : প্রথম ওয়ানডেতে শ্রীলংকার সামনে ৩২৫ রানের বিশাল টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ। গতকাল ডাম্বুলায় আগে ব্যাট করে তামিমের সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে ৩২৪ রানের বিশাল স্কোর গড়ে বাংলাদেশ। ফলে জিততে হলে শ্রীলংকাকে করতে হবে ৩২৫ রান। কাজটি কঠিনই হবে স্বাগতিকদের জন্য। ফলে প্রথম ম্যাচেই জয় দিয়ে শুরু করার পথটা সহজ করেছে বাংলাদেশ। গতকাল ওপেনার তামিম ইকবাল এই ম্যাচেই ১০ হাজার রানের ক্লাবে পা রাখার পর সেঞ্চুরি করেই নিজেকে প্রমান করেছে। এটা ক্যারিয়ারের অষ্টম সেঞ্চুরি তামিমের। ১২৭ বলে ১২ চারে সেঞ্চুরি করার পর আউট হওয়ার আগে ১২৭ রান করেই মাঠ ছেড়েছেন তামিম। ২০১৩ সালে শ্রীলংকার মাটিতে প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন তামিম। গতকাল শ্রীলংকার বিপক্ষে ডাম্বুলায় দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পেলেন। তামিম ইকবালের ১০ হাজার রানের ক্লাবে পা রাখতে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১ রানের। ব্যাট হাতে নেমে প্রথম রান নেয়ার মধ্যে দিয়ে পৌঁছে গেছেন এই মাইলফলকে। ফলে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে স্পর্শ করলেন ১০ হাজার রানের মাইলফলকটি। তামিমের সেঞ্চুরি ছাড়া গতকাল হাফ সেঞ্চুরি করেছেন সাকিব আর সাব্বির। ফলে বিশাল স্কোরে পৌঁছাতে কষ্ট হয়নি টাইগারদের। গতকাল টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিক শ্রীলংকা। ফলে প্রথমে ব্যাট করার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। আর সুযোগটা ভালোই কাজে লাগায় বাংলাদেশ। ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই বড় ইনিংগ গড়ার ইঙ্গিত ছিল বাংলাদেশ দলে। যদিও ওপেনার সৌম্য সরকারের আউটে ২৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। কারণ সৌম্য সরকার প্রথম ম্যাচে ঠিক নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। ওপেনার তামিমের সঙ্গে মাত্র ২৯ রানের জুটি গড়েন তিনি। কিন্তু সুরাঙ্গা লাকমলের করা বল ফ্লিক করেছিলেন সৌম্য। সেটা দিনেশ চান্দিমালের হাতে ধরা পড়লে মাত্র ১৩ বলে ১০ রানে আউট হন তিনি। দলীয় ২৯ রানে বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারালেও তামিম ও সাব্বির মিলে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দলকে এগিয়ে নেয় বিশাল স্কোরের দিকে। ৯০ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। সাব্বিরের বিদায়ে দলীয় ১১৯ রানে ভাংগে এই সফল জুটি। আসেলা গুনারতেœর বলে উপুল থারাঙ্গার দুর্দান্ত ক্যাচের শিকার হন সাব্বির। তবে আউট হওয়ার আগে ৫৬ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন সাব্বির। তার ইনিংসে ছিল ১০টি বাউন্ডারি। ব্যাট করতে নেমে দলের পক্ষে অবদান রাখতে পারেননি মুশফিক। লাকশান সান্দাকানের বলে আউট হওয়ার আগে মাত্র ২ বলে থামে তার ১ রানের ইনিংস। মুশফিক আউট হলে সাকিব ব্যাট করতে নেমে তামিমের সাথে জুটি করে দলকে এগিয়ে নেন। এই জুটি ভাংগার আগেই বাংলাাদেশ পৌঁছে যায় ২৬৪ রানে। গতকাল তামিমের পর সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু ৭২ রান করে আর টিকতে পানেননি সাকিব। লাকমলের বলে আউট হওয়ার আগে ৩৩তত হাফসেঞ্চুরি করা সাকিব আউট হন ৭২ রানে। ৭১ বলে ৪টি চার আর একটি ছক্কায় সাজানো ছিল সাবিবেব ইনিংস। দলীয় ২৮৯ রানে বাংলাদেশ হারায় সেঞ্চুরিয়ান তামিমের উইকেটটি। আউট হওয়ার আগে তামিম সেঞ্চুরিসহ করে ১৪২ বলে ১২৭ রান। যার মধ্যে ছিল ১৫টি চার আর একটি ছক্কার মার। এর ব্যাট করতে নেমে মোসাদ্দেক আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৬ষ্ঠ উইকেটে জুটি করে দলকে ৩২৪ রানে নিয়ে অপরাজিত থেকেই মাঠ ছাড়েন। মোসাদ্দেক ২৪ আর রিয়াদ ১৩ রানে অপিরাজিত ছিলেন। শ্রীলংকার পক্ষে লাকমাল নেন দুটি উইকেট। এর আগে বাংলাদেশের ১২৩তম ক্রিকেটার হিসেবে এদিন ওয়ানডেতে অভিষেক হয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের। কিন্তু অভিষেক ম্যাচেই ব্যাট করতে নামার সুযোগ পাননি মিরাজ। গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয়েছিল তার।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মর্তুজা, তাসকিন আহমেদ ও মোস্তাফিজুর রহমান। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ