শনিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২০
Online Edition

জনবল সংকটে ফেনী মৎস্য বিভাগ স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত

ফেনী সংবাদদাতা:  ফেনীতে মৎস্য বিভাগের ১০টি কার্যালয়ে কয়েকবছর ধরে ৩০টি পদ দীর্ঘদিন ধরে শূণ্য রয়েছে। কর্মরত রয়েছেন ২৮ জন। এতে মৎস্য বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রম চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। শূন্যপদ পূরনে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে ইতিমধ্যে লিখিতভাবে একাধিকবার চিঠির মাধ্যমে জানানো হলেও কোন ফল হয়নি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়েই উপ-সহকারী পরিচালক, মৎস্য জরিপ কর্মকর্তা ও হিসাব রক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। ফেনী সদর উপজেলায় সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার পদটি দীর্ঘদিন যাবত শূণ্য। সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা সৈয়দ মোস্তফা জামান অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। এখানে অফিস সহকারি কাম কম্পিউটার অপারেটরের পদও শূন্য। এছাড়া জেলার অপরাপর উপজেলার চিত্রও একই। ছাগলনাইয়া সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৫ পদের মধ্যে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, অফিস সহকারি কাম কম্পিউটার অপারেটর ও অফিস সহায়কের পদ শূন্য রয়েছে। পরশুরাম উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৫ পদের মধ্যে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, ক্ষেত্র সহকারী ও অফিস সহায়কের পদ শূন্য রয়েছে। ফুলগাজী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ও ক্ষেত্র সহকারির পদ শূন্য রয়েছে। দাগনভূঞা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে ক্ষেত্র সহকারি, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর ও অফিস সহায়কের পদ শূন্য রয়েছে। সোনাগাজী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, অফিস সহকারি কাম কম্পিউটার অপারেটরের পদ শূন্য রয়েছে। ফেনী সদর উপজেলা মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারে ক্ষেত্র সহকারি, অফিস সহায়ক ও হ্যাচারী এটেনডেন্টের পদ শূন্য রয়েছে। ছাগলনাইয়া মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারে অফিস সহায়ক ও গার্ড এর পদ শূন্য রয়েছে। সোনাগাজী মৎস্য উৎপাদন ও সম্প্রসারণ কেন্দ্রে ৮ পদের মধ্যে খামার ব্যবস্থাপক আর ক্ষেত্র সহকারির ১পদ ছাড়া বাকী ৬ পদই শূন্য রয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে ক্ষেত্র সহকারির ২টি, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর, গাড়ী চালক এবং অফিস সহায়কের পদ।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. মো: মনিরুজ্জামান বলেন, জনবল সংকটের কারণে অফিসিয়াল ও মাঠপর্যায়ের কাজ বিঘিœত হলেও কার্যক্রম চালিয়ে নেয়া হচ্ছে। তিনি জানান, জনবল সংকটের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠির মাধ্যমে দুইবার জানানো হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো জনবল দেয়া হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ