বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

আগৈলঝাড়ায় মাদক সেবনকারী বিক্রেতা ও গডফাদারদের আত্মসমর্পণের আহ্বান

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা : রাষ্ট্রীয় প্রশাসন কর্তৃক সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী ও মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পনের আহ্বানের পর বরিশাল জেলার সর্ব প্রথম আগৈলঝাড়া উপজেলাকে মাদক মুক্ত হিসেবে ঘোষণা করতে ও  মাদকাসক্তদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে এবার মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা ও তাদের আশ্রয় প্রশ্রয়দাতা গডফাদারদের আত্মসমর্পনের আহ্বান জানিয়েছে আগৈলঝাড়া থানা পুলিশ। আগৈলঝাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, বরিশাল জেলা পুলিশের সহায়তায় থানা পুলিশের উদ্যোগে উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ১৪১ জন মাদকাসক্তদের আত্মসমর্পনের লক্ষে ১৩ মার্চ থানা চত্তরে এক বিশেষ সভার আয়োজন করেছে পুলিশ প্রশাসন। এলক্ষে সকল প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে। ওসি মনিরুল আরও জানান, মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স ঘোষণা বাস্তবায়ন করতে মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা ও গডফাদারদের আত্মসমর্পনের আহ্বান জানানো হয়েছে। এজন্য পুলিশ প্রশাসনের হাতে থাকা উপজেলার মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা ও গডফাদারদের তালিকানুযায়ি তাদের বাবা-মা অথবা নিকটতম আত্মীয় স্বজনদের কাছে তাদের আত্মসমর্পনের আহ্বান জানিয়ে পুলিশ দাওয়াত পৌছে দিয়েছেন। পুলিশ প্রশাসনের এই আহ্বান সর্বত্র পৌছে দেয়ার জন্য বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করাসহ বিভিন্ন হাট বাজারে সমাবেশের মাধ্যমেও প্রচার করা হয়েছে।
সূত্র মতে, চারটি ধাপে মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা, গডফাদার ও মাদকাসক্তদের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। এর মধ্যে “এ’’ গ্রুপে বড় মাদক ব্যবসায়ি ৩৬জন, “বি” গ্রুপে মধ্যম মাদক ব্যবসায়ি ২৩জন, “সি” গ্রুপে ছোট থেকে মাধ্যম মাদক ব্যবসায়ি ৩২জন, “ডি” গ্রুপে ছোট মাদক ব্যবসায়ি ৪২জন এবং ৮জন মাদক ব্যবসায়িদের আশ্রয় প্রশ্রয়দাতা বা গডফাদারের তালিকাসহ  মোট ১৪১ জনকে আত্মসমর্পনের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। মাদক সেবনকারী ও ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারি উচ্চারন করে ওসি মনিরুল আরও বলেন, স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে যারা পুলিশের কাছে আত্মসমর্পন করবে, পুলিশ তাদের মাদক নিরাময়ের জন্য চিকিৎসা প্রদান করে তাদের যোগ্যতানুযায়ি কাজের শুপারিশ করে পূর্বের জীবন থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সার্বিক সহযোগিতা করবে।
তাদের বিরুদ্ধে আইনী কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে না। তবে, যদি এইদিন তালিকাভুক্ত মাদকাসক্তরা পুলিশের কাছে আত্মসমর্পন না করে তবে বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান তিনি।
প্রণয়নকৃত মাদকাসক্তদের তালিকা সম্পর্কে ওসি জানান, সম্প্রতি (১৯ফেব্রুয়ারী) বিভিন্ন এলাকার সর্ব শ্রেনি ও পেশার লোকজনের উপস্থিতিতে থানা চত্তরে অনুষ্ঠিত মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী সভায় জেলা পুলিশের নির্দ্দিষ্ট ফরমে দেয়া মাদকাসক্তদের নাম যাচাই বাছাই করে চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। সর্বশেষ তিনি জানান, এই তালিকার বাইরেও যদি কেউ থাকে, তাদের ব্যাপারে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ