শনিবার ১১ জুলাই ২০২০
Online Edition

মোবাইল ফোনে পরিচয় ॥ অতঃপর অসম প্রেমে সর্বনাশ

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা : নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক অসম বয়সী প্রেমিকাকে বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে স্ত্রী পরিচয় দিয়ে রাতভর ধর্ষণ করেছে তিন সন্তানের জনক এক লম্পট। পরে এলাকাবাসী তাদের আটক করে ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে সৈয়দপুর থানায় সোপার্দ করেছে। আটককৃত ওই লম্পট প্রেমিক হলো দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার বড় কেরাছপুর (আফতাবগঞ্জ স্বপ্নপুরী) গ্রামের মৃত কলিম উদ্দিনের পুত্র তিন সন্তানের জনক কাজল ইসলাম (৩৮) এবং প্রতারণার শিকার ওই প্রেমিকা হলো রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের শামসুল হক সরকারের মেয়ে সদ্য এসএসসি পরীক্ষা দেয়া সুবর্ণা ইয়াসমীন (১৬)।
প্রতারণার শিকার সুবর্ণা জানায়, ছয় মাস আগে রং নাম্বারের সূত্রে কাজলের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয়। এরপর ধীরে ধীরে তা প্রেমের সম্পর্কে গড়ায়। সে যে এত বয়স্ক, বিবাহিত ও তিন সন্তানের জনক তা আমার জানা ছিল না। তার সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হই। রংপুরের পীরগঞ্জ বাজারে কাজলের সাথে আমার দেখা হওয়ার পর তার অনেক বয়স দেখে তার সাথে ঘুরতে যেতে অস্বীকৃতি জানাই। কিন্ত সে আমাকে জোরপূর্বক অটোরিকশায় তুলে নিয়ে রংপুর শহরে আসার পর বাসে তুলে সৈয়দপুরে নিয়ে আসে। লম্পট কাজলের বিচার চেয়ে সুবর্ণা জানায়, এরপর আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তার এক বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে যায় এবং স্বামী-স্ত্রীর অভিনয় করতে বলে।
এদিকে আশ্রয়দানকারী বন্ধু কামারপুকুর ইউপির আইসঢাল হাজীপাড়া গ্রামের কবির উদ্দিনের পুত্র জহুরুল ইসলামকে (৩০) এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে সে জানায়, স্বপ্নপুরী এলাকার একটি ইটভাটায় আগুন মিস্ত্রী হিসেবে কাজ করার সুবাদে কাজলের সাথে পরিচয়। গত বৃহস্পতিবার রাতে সুবর্ণাকে নিজের স্ত্রী পরিচয় দিয়ে আমার বাসায় ওঠে কাজল। এখানে রাত যাপনের পর দু’জনের বয়সের অনেক ব্যবধান ও তাদের গতিবিধি দেখে আমার সন্দেহ হলে আমি কাজলকে জেরা করলে তারা স্বামী-স্ত্রী নয় বলে স্বীকার করে। এরপর আমি ওই দু’জনকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে সোপর্দ করি। আটক কাজল জানান, ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম লোকমানের নির্দেশে ইউপি সদস্যরা এলোপাথারী মারডাং করে আহত করে। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ আমীরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ওই অসম বয়সী প্রেমিক যুগলকে থানায় আনা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ