শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

টোকিও পৌঁছেছেন সৌদী বাদশাহ সালমান

১৩ মার্চ, আল জাজিরা/সিবিএস নিউজ : জাপান সফরে যাওয়া সৌদি আরবের বাদশাহর প্রায় দেড় হাজার সফরসঙ্গীর জন্য টোকিওর অধিকাংশ বিলাসবহুল হোটেল, গাড়ি ও ট্যাক্সি ভাড়া করে ফেলছে সৌদি সরকার।
চারদিনের সফরে গত রোববার বিশাল বহর নিয়ে জাপানের রাজধানী টোকিও পৌঁছান বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ। তাদের রাজকীয় নিরাপত্তা দিতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে স্থানীয় প্রশাসনকে।
স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় ১০টি উড়োজাহাজে করে সফরসঙ্গীদের নিয়ে টোকিওর হানেদাত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান বাদশাহ সালমান।
জাপানের ইতিহাসে এত সফরসঙ্গী নিয়ে কোনও ভিআইপির এটাই প্রথম সফর।
এর আগে গত সেপ্টেম্বরে প্রায় ৫০০ সফরসঙ্গী নিয়ে জাপান সফর করেন সৌদি বাদশাহ পুত্র মোহাম্মদ বিন সালমান। জাপানে তেল সরবরাহকারী অন্যতম প্রধান দেশ সৌদি আরব। বাদশাহ সালমানের আগমনে বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে এবং প্রিন্স নারিহিতো। সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, সালমানের ১২০০ সফরসঙ্গীর জন্য সৌদি সরকার টোকিওর সিংহভাগ বিলাসবহুল হোটেল আগাম বুকিং দিয়ে রেখেছে।
এছাড়া, টোকিওতে চলাচলকারী প্রায় পাঁচশ অত্যাধুনিক লুমিনাস বাস আগামী চারদিনের জন্য সৌদি সরকারের হয়ে কাজ করবে। ভাড়া করা হয়েছে বিলাসবহুল প্রাইভেট কারও। সালমানের এই বিশাল বহর নিয়ে প্রধানমন্ত্রী অ্যাবেও কৌতূকে মেতেছেন।
তিনি বলেন, যদি বাদশাহর সফরসঙ্গীরা কোনও দোকানে যান তাহলে আমার বিশ্বাস দোকানটির একদিনের বিকিকিনি সারা বছরের বিকিকিনির সমান হবে।
স্থানীয় ব্যবসায়ীরাও বাদশাহর সফরসঙ্গীদের তাদের দোকানে পেতে চান। চারদিনের সফরে বাদশাহ সালমান প্রধানমন্ত্রী অ্যাবের সঙ্গে অর্থনৈতিক বিষয় নিয়ে বেশ কয়েকটি চুক্তি করবেন বলে জানা গেছে। এছাড়াও, তিনি স¤্রাট আকিহিতোর সাঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন বলে জানিয়েছে জাপান কর্তৃপক্ষ।
এদিকে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান গতকাল সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে সৌদি আরব ত্যাগ করেছেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন। ট্রাম্প গত জানুয়ারি মাসে ক্ষমতায় আসার পরে এটিই হবে যুকরাজের সঙ্গে প্রথম বৈঠক।
এই বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক পূনর্বহাল নিয়ে আলোচনা ও পারস্পরিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক বিষয়ে পর্যালোচনা করবেন ট্রাম্প- মোহাম্মদ।
অপরদিকে মোহাম্মদ বিন সালমান পশ্চিমাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক স্থাপন করতে সফরে বের হয়েছেন। মোহাম্মদ বিল সালমান সৌদি রাজপরিবারের সবচেয়ে ক্ষমতাসীন যুবরাজ হচ্ছে মোহাম্মদ বিন সালমান। তিনি একই সঙ্গে দেশের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ