মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বেলাবতে ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে মার্কেট দখলের অভিযোগ

বেলাব (নরসিংদী) সংবাদদাতা: বেলাবতে ভূমিদুস্যদের বিরুদ্ধে শহীদুল্লাহ নামে এক ব্যক্তির মালিকানা মার্কেট দখলের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চরউজিলাব ইউনিয়নের বাারৈচা গ্রামে। এ ঘটনায় বারৈচা গ্রামের আঃ রাজ্জাকের ছেলে ভুক্তভোগী শহীদুল্লাহ আদালতে মামলা দায়েরের পর একই গ্রামের ভূমিদস্যু সিরাজুল ইসলাম,ইমরান মিয়া,জাহাঙ্গীর আলম,আলআমিন ও শরিফ মিয়া, সিরাজুল ইসলামের হুমকির কারণে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। জানা যায়,উপজেলার বারৈচা বাজারের বেলাব রোডের পাশে শহীদুল্লাহ পৈত্রিক সূত্রে মালিক হয়ে ১৪ শতাংশ জমির উপর একটি মার্কেট নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছে। কিন্তু সম্প্রতি উক্ত মার্কেটের উপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে শহীদুল্লাহর চাচাত ভাই আব্দুল আলীর ছেলে সিরাজ মিয়ার। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২ মার্চ সিরাজ মিয়া,তার ভাই ইমরান,সিরাজ মিয়ার ছেলে মাহাবুব,পার্শ্ববর্তী উপজেলা ভৈরবের আলআমিন ও আলম মিয়াসহ ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জ্বিত হয়ে মার্কেট দখলে ব্যর্থ হয়ে শহীদুল্লার বাড়িতে হামলা চালায়। শহীদুল্লাহকে বাড়িতে না পেয়ে তার স্ত্রী খাদিজা আক্তার ও বোন ইয়াছমিনকে লাঠি ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এসময় হামলাকারীরা শহীদুল্লাহর ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে নগদ ৬৫ হাজার টাকা,স্বর্ণালংকার সহ প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এর আগেও ফেব্রুয়ারী মাসের ২০ তারিখে হামলাকারীরা শহীদুল্লাহর মার্কেট দখলের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় শহীদুল্লাহ নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৪৫ ধারায় উপরোক্ত হামলাকারীদের আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর আসামীরা আদালতে অন্যায় ভাবে হামলা ও মারধর না করার অঙ্গীকার দিয়েও গত ২ মার্চ দ্বিতীয় দফায় পুনরায় হামলা চালায়। বর্তমানে হামলাকারীদের ভয়ে শহীদুল্লাহর পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে শহীদুল্লাহ জানান,অন্যায়ভাবে সিরাজ মিয়া তার লোকদের নিয়ে আমার মালিকানা মার্কেট দখলের চেষ্টা করছে। প্রতিবাদ করলে আমাদের উপর ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে হামলা করে। নিরুপায় হয়ে মামলা দায়ের করেও তাদের অব্যাহত হুমকীর কারণে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। সিরাজ মিয়া বলেন,আমার অংশের ৭ শতাংশ জমি বে-আইনী ভাবে শহীদুল্লাহ দখল করে মার্কেট নির্মাণ করেছে। এ ব্যাপারে এলাকায় গ্রাম্য সালিশও হয়েছে। আমি যদি কাগজ পত্রে জমি পাই তাবে আমার জমি ফেরত দিতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ