বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

সুপ্রীমকোর্টের সামনে থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তি অপসারণের দাবি ওলামা লীগের

স্টাফ রিপোর্টার : সুপ্রিম কোর্টের সামনে স্থাপিত ভাস্কর্য গ্রিক দেবী থেমিসের প্রতি মূর্তিকে ইসলাম বিরোধী আখ্যায়িত করে তা অপসারণের দাবি জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ।  অবিলম্বে বিএনপিকে সন্ত্রাসবাদী দল হিসেবে নিষিদ্ধ ও ড. মুহম্মদ ইউনূসের নাগরিকত্ব বাতিল করারও দাবি জানিয়েছে ওলামা লীগ।  এছাড়া ওলামা লীগের নেতারা পহেলা বৈশাখ এবং মঙ্গল শোভাযাত্রা বাঙালি বা মুসলমানের সংস্কৃতি নয় উল্লেখ করে বৈশাখী ভাতা বাতিল করে ‘১২ রবিউল আউয়াল ভাতা’ প্রদানেরও দাবি জানায়।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে এসব দাবি জানানো হয়।  মানববন্ধনে ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি দল অংশ নেয়।
মানববন্ধনে দেওয়া বক্তব্যে ওলামা লীগের সভাপতি মাওলানা মোহাম্মদ আখতার হোসাইন বোখারী বলেন, ৯৮ ভাগ মুসলমানের দেশে মূর্তিপূজার প্রসার ঘটানো হচ্ছে।  এটা করতে দেওয়া যাবে না।  সুপ্রিম কোর্টের সামনে স্থাপিত মূর্তি সরাতে হবে।  না সরালে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে তা অপসারণে বাধ্য করা হবে।  এ সময় তিনি বিএনপিকে অবিলম্বে সন্ত্রাসবাদী দল হিসেবে নিষিদ্ধের দাবি জানান।
নোবেলজয়ী ড. ইউনুসকে পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারী উল্লেখ করে তিনি বলেন, গরিবের রক্তচোষা সুদখোর ড. ইউনুসের নাগরিকত্ব বাতিল করতে হবে।  শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফর নিয়ে তিনি বলেন, তিস্তা চুক্তি, গঙ্গা ব্যারাজ চুক্তি নিশ্চিত না করে তার ভারত সফর করা উচিত হবে না।
মানববন্ধনে উপস্থিত সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার কঠোর হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে হাইকোর্টের রায় উচ্চ আদালতেও বহাল রাখতে হবে। গয়েশ্বর মার্কা উগ্র মৌলবাদী হিন্দুদের চক্রান্তে রাষ্ট্রধর্ম বাতিল করে জামায়াত-জোট, হেফাজতের হাতে সরকারবিরোধী ইস্যু তুলে দেওয়া যাবে না।  রাষ্ট্রধর্ম বাতিলের সিদ্ধান্ত  ৯৮ ভাগ মুসলমান মেনে নেবে না।
তিনি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুরকে উদ্দেশ করে বলেন, তিনি পহেলা বৈশাখে হিন্দুদের মঙ্গল শোভাযাত্রা সারা দেশে সরকারিভাবে পালনের ঘোষণা দিয়েছেন যা মুসলমানদেরকে হিন্দুয়ানী উৎসব পালনে বাধ্য করার শামিল। তিনি মন্ত্রী বলে কেউ হয়তো তাকে সামনাসামনি কিছু করতে পারবে না কিন্তু পেছনে তাকে উদ্দেশ্য করে জনগণ থু থু দেবে। তাই অবিলম্বে এটা প্রত্যাহার করতে হবে।
পহেলা বৈশাখ এবং মঙ্গল শোভাযাত্রা বাঙালি বা মুসলমানের সংস্কৃতি নয় বরং হিন্দুদের ধর্মীয় সংস্কৃতি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাওলানা মুহাম্মদ আবুল হাসান বলেন, দেশে বিবাহবহির্ভূত অবৈধ কুমারীমাতা উৎপাদনের চক্রান্তকারী সমস্ত এনজিওদের অপতৎপরতা রুখতে হবে।  অবিলম্বে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন বাতিল করতে হবে।  এ সময় তিনি পহেলা বৈশাখের পরিবর্তে ১২ই রবিউল আউয়ালের ভাতা প্রদানের দাবি জানান।
মানববন্ধনে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলাম লীগসহ সমমনা ১৩টি দলের কয়েকশ’ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।  তাদের হাতে, সুপ্রিম কোর্টে মূর্তি নয়, ইসলামী নিদর্শন চাই, বাল্যবিবাহ খাস সুন্নত, বিরোধিতা করা কুফরি, বাংলাদেশ মসজিদের দেশ, মূর্তির দেশ না ইত্যাদি লেখা সম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুন দেখা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ