বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

পরিবহন ধর্মঘটে ইন্ধন আছে কি না দেখা হচ্ছে দেশে আল-কায়দা ও জঙ্গিবাদের অস্বিত্ব নেই -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : দুই চালকের সাজার প্রতিবাদে সারাদেশে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে কারো ইন্ধন আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। গতকাল শনিবার ভোলার চরফ্যাশন সরকারি কলেজ মাঠে এক সুধী সমাবেশ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।
তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহতের ঘটনায় এক বাস চালককে যাবজ্জীবন সাজার রায় হওয়ায় গত ২৬ ফেব্রুয়ারি খুলনা বিভাগের দশ জেলায় এবং সাভারে ট্রাকচাপায় এক নারীকে হত্যায় চালকের ফাঁসির রায় দিলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন ২৮ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু করে। পরবর্তীতে শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে মন্ত্রীর বৈঠকের পর তার প্রত্যাহার করা হয়।
এ নিয়ে আসাদুজ্জামান বলেন, “আদালত যে রায় দিয়েছে তা নিয়ে উচ্চতর আদালতে যেতে পারতো। তা না করে আন্দোলন করাটা অযৌক্তিক, অযথা আন্দোলন ছিল।” ‘এর পেছনে যদি কারও উদ্দেশ্য থাকে বা কেউ করিয়ে থাকে তাহলে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা তা দেখবে।”ধর্মঘটে কারো ইন্ধনদাতা খুঁজতে গিয়ে কাউকে অযথা হয়রানি করবে না বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
আইনশৃঙ্খল বাহিনীর কাজের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “ দেশে আল কায়েদা বা আইএসের কোনো অস্বিত্ব নেই। যে গুলোছিল, আছে সেগুলো দেশে তৈরি কিছু সন্ত্রাসী-জঙ্গি বাহিনী। যা আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী যথার্থভাবেই দমন করতে পেরেছে।”
চরফ্যাশন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কায়সা আহমেদ দুলালের সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ছাড়াও বন ও পরিবেশ উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজিপি শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান, ভোলা জেলা প্রশাসক মো. সেলিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। পরে মন্ত্রী চরফ্যাশন সরকারি কলেজের নব নির্মিত চারতলা একাডেমিক ভবন এবং ঢালচর ও চরকুকরি-মুকরিতে দুটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ