বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

নাটকীয় জয়ে ফাইনালে কোয়েটা

স্পোর্টস ডেস্ক : শেষ ওভারে চার উইকেট হাতে রেখে ৭ রান নিতে পারলো না তামিম-সাকিববিহীন পেশোয়ার জালমি। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ১ রানের নাটকীয় জয়ে পাকিস্তান সুপার লিগের ফাইনালে উঠে গেছে কোয়েটা গ্লাডিয়েটরস। শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ায় কোয়েটার হয়ে এ ম্যাচে ছিলেন না বাংলাদেশের আরেক ক্রিকেট তারকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। হেরে গেলেও পেশোয়ারের শিরোপা স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়নি। ৩ মার্চের কোয়ালিফায়ার ম্যাচে প্রতিপক্ষ ইসলামাবাদ ইউনাইটেড ও করাচি কিংসের মধ্যকার এলিমিনেটর বিজয়ী। স্পিনার মোহাম্মদ নওয়াজের করা ওভারটিতে প্রথম তিন বলে পাঁচ রান নেন অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি (১১ অপ.)।  ক্রিস জর্ডান সরফরাজ আহমেদের হাতে গ্লাভসবন্দি হওয়ার পর রানআউটের শিকার হন ওয়াহাব রিয়াজ ও হাসান আলী। তার আগে কোয়েটার ছুঁড়ে দেওয়া ২০১ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যে শুরুতেই কামরান আকমল (১) ও মারলন স্যামুয়েলসকে (১) হারায় পেশোয়ার। ১৩৯ রানের জুটিতে দলকে ম্যাচে ফেরান ডেভিড মালান (৩০ বলে ৫৬) ও মোহাম্মদ হাফিজ (৪৭ বলে ৭৭)। ১৩ বলে ৩৪ রানের ঝড়ো ইনিংস উপহার দেন শহীদ আফ্রিদি। কিন্তু, শেষদিকের নাটকীয়কায় হার মেনেই মাঠ ছাড়তে হয়। সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট লাভ করেন নওয়াজ। একটি করে নেন আনোয়াল আলী, জুলফিকার বাবর ও টাইমল মিলস।এর আগে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে কোয়েটাকে ব্যাটিংয়ে পাঠান স্যামি। নির্ধারিত ওভার শেষে তারা স্কোরবোর্ডে সাত উইকেটে ২০০ রান তোলে। ৭১ রানের (৩৮ বলে) দুর্দান্ত ইনিংস উপহার দেন ম্যাচসেরা আহমেদ শেহজাদ। কেভিন পিটারসেন করেন ২২ বলে ৪০। এছাড়া রাইলি রুশো ১৭, অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ১৭ (রানআউট) ও আনোয়ার আলী ২০ রান (রানআউট) করেন। ওয়াহাব রিয়াজ তিনটি ও হাসান আলী, ড্যারেন স্যামি একটি করে উইকেট নেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ