শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

আট দেশের অংশগ্রহণে হকি ওয়ার্ল্ড লিগ রাউন্ড-২ শনিবার ঢাকায় শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার : এশিয়া কাপ, এশিয়া কাপের বাছাই, এশিয়ান গেমসের বাছাই, এএইচএফ কাপ এবং বয়সভিত্তিক অনেক আন্তর্জাতিক হকি প্রতিযোগিতার আয়োজনের অভিজ্ঞতা রয়েছে বাংলাদেশের।  তবে হকি ওয়ার্ল্ড লিগ রাউন্ড-২ এর মতো এত বড় আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট এই প্রথম বসছে ঢাকায়।  ৪ থেকে ১২ মার্চ মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য এ টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে ৮ দেশ।  এশিয়ার বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, চীন, ওমান ও শ্রীলংকার পাশাপাশি টুর্নামেন্টে রয়েছে আফ্রিকার ঘানা, মিশর এবং ওশেনিয়া অঞ্চলের ফিজি।  দুই গ্রুপে ৮ দেশ অংশ নিচ্ছে টুর্নামেন্টে।  বাংলাদেশের সাথে ‘এ’ গ্রুপের দলগুলো হচ্ছে-মালয়েশিয়া, ওমান ও ফিজি।  ‘বি’ গ্রুপের দলগুলো-চীন, মিশর, ঘানা ও শ্রীলংকা।  গ্রুপ পর্ব শেষে হবে কোয়ার্টার ফাইনাল।  তার পর সেমিফাইনাল ও ফাইনাল।  ঢাকা পর্ব থেকে শীর্ষ দুই দেশ পরবর্তী রাউন্ডে অর্থাৎ ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় তৃতীয় পর্বেও খেলায় অংশ নেয়ার যোগ্যতা অর্জন করবে।  ইতিমধ্যে টুর্নামেন্টে অংশ নিতে দলগুলো ঢাকায় আসতে শুরু করেছে।  সবার আগে ঘানা দল ঢাকায় এসেছে।  হকি ওয়ার্ল্ড লিগ রাউন্ড-২ এর ‘বি’ গ্রুপের দলটির আগেভাগে আসা বাংলাদেশের সঙ্গে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে।  ইতিমধ্যে তিনটি ম্যাচই স্বাগতিকদের বিপক্ষে খেলেছে ঘানা।  সর্বশেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হলো গতকাল বুধবার।  ৮ জাতির এ টুর্নামেন্টে বাকি ৬ বিদেশি দলের ঢাকায় আগমনও শুরু হয়েছে।  মঙ্গলবার রাতে ঢাকায় এসেছে মালয়েশিয়া, যারা টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের প্রথম প্রতিপক্ষ।  ওমান দলও এখন ঢাকায়।  শ্রীলংকা দল ছাড়া বাকি দলগুলো বুধবার রাতের মধ্যেই ঢাকা পৌঁছবে।  

আন্তর্জাতিক এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে গতকাল বুধবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছিলো বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের। সহ-সভাপতি খাজা রহমত উল্লাহ দুপুরে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য সব রকমের প্রস্তুতিই তাদের রয়েছে।  আগামী ২ দিনের মধ্যে প্রস্তুতির সকল কাজ সম্পন্ন হবে। আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের অনুমোদিত এত উঁচু মানের প্রতিযোগিতার এবারই প্রথম আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে বাংলাদেশ।  তিনি জানালেন,বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে দলগুলোর নিরাপত্তায়।  এর আগে নিরাপত্তার অজুহাতে একটি টুর্নামেন্টে খেলতে আসেনি জাপান, হকি ওয়ার্ল্ড লিগ রাউন্ড-২ ঢাকা পর্ব থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে কানাডা।  এসব উল্লেখ করে খাজা রহমতউল্লাহ বলেছেন, ‘নিরাপত্তার বিষয়টি কঠোরভাবে মনিটর করা হবে।  প্রত্যেকটি গেটে সিসি ক্যামেরা থাকবে।  এভাবে ১৬ টি ক্যামেরা দিয়ে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ করা হবে।  যে কোনো গেট দিয়ে প্রবেশের সময় দর্শকদের দেহ তল¬াশি করা হবে।  আমরা এ জায়গাটায় কোনো ঘাটতি রাখতে চাই না।  নিরাপত্তার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর সঙ্গে আমাদের বেশ কয়েক দফা সভা হয়েছে।’ টুর্নামেন্টের বাজেট ধরা হয়েছে ১ কোটি টাকা।  এর মধ্যে আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশন দিচ্ছে মাত্র ১০০০ মার্কিন ডলার।  বাকি অর্থ দিচ্ছে দুটি স্পন্সর প্রতিষ্ঠান (এফএমসির ও ইনডেক্স গ্রুপ)।  তবে কোন প্রতিষ্ঠান কত টাকা দিচ্ছে, তা জানাতে পারেননি খাজা রহমতউল্লাহ। 

এদিকে টুর্নামেন্টের ২৪ ম্যাচের মধ্যে ৭ টি সরাসরি সম্প্রচার কারবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন বাংলা।  সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা মীর মোতাহার হোসেন বলেছেন, ‘বাংলাদেশের গ্রুপ পর্বের ৩ এবং সেমিফাইনাল ও ফাইনালসহ আরও ৪ ম্যাচ আমরা সরাসরি সম্প্রচার করবো।  অবস্থা বুঝে আরও বেশি ম্যাচ সম্প্রচার করতে পারি।  আমাদের উদ্দেশ্য- প্রচারের মাধ্যমে বিশ্বকে জানিয়ে দেয়া যে, এমন বড় টুর্নামেন্ট সফল ও সুন্দরভাবে আয়োজনে সক্ষম বাংলাদেশ।’ সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টুর্নামেন্ট কমিটির সেক্রেটারি ও ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক আনভীর আদেল খান, পৃষ্ঠপোষক এফএমসির চেয়ারম্যান ইয়াছিন চৌধুরী ও ইনডেক্স গ্রুপের প্রতিনিধি আরিফুল হক প্রিন্স।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ